শিরোনাম :

  • ডি মারিয়া উড়িয়ে দিলেন রিয়ালকে তিন সপ্তাহ পরিকল্পনা, অতঃপর অভিযানের গ্রিন সিগন্যাল কোহলির ব্যাটে সহজ জয় ভারতের বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদুর বাড়িতে হামলা জাবি উপাচার্যকে পদত্যাগের জন্য আল্টেমেটাম
বুমরাহর হ্যাটট্রিকে লন্ডভন্ড ওয়েস্ট ইন্ডিজ
স্পোর্টস ডেস্ক :
০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:৪৩:৫৭
প্রিন্টঅ-অ+


দ্বিতীয় দিনের প্রথম বলেই রিশাভ পান্তকে সাজঘরে পাঠিয়ে শুরুটা দুর্দান্ত করেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। পরে তিনি পূরণ করেছেন নিজের পাঁচ উইকেটও। কিন্তু দিন শেষে আর হাসিমুখ ধরে রাখতে পারেননি ক্যারিবীয় অধিনায়ক।

অবশ্য বলা ভালো, ক্যারিবীয়দের মুখের হাসি কেড়ে নিয়েছেন ভারতের গতিতারকা জাসপ্রিত বুমরাহ। অসাধারণ বোলিংয়ে হ্যাটট্রিকসহ ৬ উইকেট নিয়ে ভেঙে দিয়েছেন উইন্ডিজ ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড। যার ফলে ৪১৬ রানের জবাবে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়ে গেছে স্বাগতিকরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে সবশেষ টেস্ট হ্যাটট্রিক হয়েছিল প্রায় ১৫ বছর আগে, ২০০৪ সালে। আর ভারতের হয়ে সবশেষ হ্যাটট্রিক করার নজির ছিল প্রায় ১৩ বছর আগে, ২০০৬ সালে। এ দুই লম্বা বিরতির অবসান ঘটিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে সবমিলিয়ে ৪৬তম, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাত্র ৪র্থ এবং ভারতের জার্সি গায়ে ৩য় বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছেন বুমরাহ।

ক্যারিবীয়দের ইনিংসের ৯ম ওভারের দ্বিতীয় বলে ড্যারেন ব্রাভোকে লোকেশ রাহুলের হাতে ক্যাচ বানিয়ে হ্যাটট্রিকের সূচনা করেন বুমরাহ। এরপর শামার ব্রুকস ও রস্টোন চেজকে ফেরান লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে। চেজের উইকেটটিতে প্রথমে আঙুল তোলেননি আম্পায়ার, রিভিউ নিতেও রাজি ছিলেন না বুমরাহ।

অধিনায়ক বিরাট কোহলির ইচ্ছায় রিভিউ নেয় ভারত, আর তাতেই হয়ে যায় বুমরাহর হ্যাটট্রিক। যার ফলে হরভজন সিং (অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০০১ সালে) এবং ইরফান পাঠানের (পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০০৬ সালে) পর তৃতীয় ভারতীয় হিসেবে টেস্টে হ্যাটট্রিকের স্বাদ পান বুমরাহ। এছাড়া জার্মেইন লওসন ও ম্যাথু হোগার্ডের পর তৃতীয় বোলার হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে এ কীর্তি দেখিয়েছেন তিনি।

শুধু হ্যাটট্রিক করেই থেমে থাকেননি বুমরাহ, পূরণ করেছেন ইনিংসের নিজের ষষ্ঠ পাঁচ উইকেটও। দিন শেষে ৩৩ ওভার ব্যাটিং করে ক্যারিবীয়দের সংগ্রহ ৭ উইকেট ৮৭ রান। এর মধ্যে ৯.১ ওভার বল করে মাত্র ১৬ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট নিয়েছেন বুমরাহ একাই। অন্য উইকেটের দখলদার মোহাম্মদ শামী। ফলোঅন এড়াতে এখনও ১৩০ রান প্রয়োজন ওয়েস্ট ইন্ডিজের।

এদিকে দিনের প্রথম বলেই রিশাভ পান্তের উইকেট হারালেও, হানুমা বিহারী ও ইশান্ত শর্মার ১১২ রানের জুটিতে ভর করে ৪১৬ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। অষ্টম উইকেটে বিহারীর সঙ্গে এ জুটি গড়ার পথে ৫৮ রান করেন ইশান্ত। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করে ১১১ রানের ইনিংস খেলেন বিহারী।



আমার বার্তা/০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন