শিরোনাম :

  • ডি মারিয়া উড়িয়ে দিলেন রিয়ালকে তিন সপ্তাহ পরিকল্পনা, অতঃপর অভিযানের গ্রিন সিগন্যাল কোহলির ব্যাটে সহজ জয় ভারতের বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদুর বাড়িতে হামলা জাবি উপাচার্যকে পদত্যাগের জন্য আল্টেমেটাম
সাকিবের পর রফিককেও পেছনে ফেললেন তাইজুল
স্পোর্টস ডেস্ক :
০৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১২:২১:১২
প্রিন্টঅ-অ+


মিডিয়া প্রান্ত থেকে বল হাতে ইনিংসের সূচনা করেছিলেন তাইজুল ইসলাম। এরপর থেকে অপর প্রান্তে দুই স্পেলে বোলিং করলেন সাকিব আল হাসান, তার মাঝে এসে করে গেলেন মেহেদি হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসান; কিন্তু একপাশে টানা বল করেই যাচ্ছেন তাইজুল।

যার সুফলও পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথম ঘণ্টায় ইহসানউল্লাহ জানাতকে আউট করে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেয়ার পর, দ্বিতীয় ঘণ্টায় অপর ওপেনার ইব্রাহিম জাদরানকেও সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন তাইজুল।

ইনিংসের শুরু থেকে রয়ে সয়েই খেলছিলেন ইব্রাহিম। টেস্ট মেজাজের পরিচয় দিয়ে ব্যাট করছিলেন বলের মেধা বিচার করে; কিন্তু ২৫তম ওভারে আর মনোযোগ ধরে রাখতে পারেননি ডানহাতি এ ওপেনার। উইকেট ছেড়ে বোলারের মাথার ওপর দিয়ে বড় শট খেলতে গিয়ে তিনি ধরা পড়েছেন লংঅফে দাঁড়ানো মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের হাতে। আউট হওয়ার আগে ৬৯ বল খেলে ৩ চারের মারে ২১ রান করেছেন ইব্রাহিম।

এদিকে সকালের সেশনে পাওয়া দুই উইকেটে দু’টি রেকর্ড হয়েছে তাইজুলের। ইহসানউল্লাহকে আউট করার মাধ্যমে তিনি পূরণ করেছিলেন টেস্ট ক্রিকেটে উইকেটের শতক। মাত্র ২৫ ম্যাচে এ শতক পূরণের মাধ্যমে সাকিব আল হাসানকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশের পক্ষে দ্রুততম বোলার হয়েছেন তাইজুল।

এরপরের উইকেটেই ইব্রাহিমকে ফিরিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে উইকেটসংখ্যায় মোহাম্মদ রফিককে পেছনে ফেলে দিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। অবসর নেয়ার আগে ৩৩ ম্যাচ খেলে ১০০ উইকেট শিকার করেছিলেন রফিক। ইব্রাহিমের উইকেটটি তাইজুলের ক্যারিয়ারের ১০১তম। বাংলাদেশের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট যথারীতি সাকিব আল হাসানের, ২০৫টি।

বাংলাদেশের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট

১. সাকিব আল হাসান - ৫৬ ম্যাচে ২০৫* উইকেট

২. তাইজুল ইসলাম - ২৫ ম্যাচে ১০১* উইকেট

৩. মোহাম্মদ রফিক - ৩৩ ম্যাচে ১০০ উইকেট

৪. মেহেদি হাসান মিরাজ - ২০ ম্যাচে ৮৬* উইকেট

৫. মাশরাফি বিন মর্তুজা - ৩৬ ম্যাচে ৭৮ উইকেট



আমার বার্তা/০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন