শিরোনাম :

  • আজ শুরু হচ্ছে মহাকালের ‘বাংলা নাট্যোৎসব’ সোনাদিয়ায় শিল্পকারখানা স্থাপন না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বিক্রিই হলেন না সাকিব-গেইল-মালিঙ্গারা রাজধানীতে আনসার আল ইসলামের চার সদস্য গ্রেফতার কালিদাস কর্মকারের মরদেহে শ্রদ্ধা চারুকলায়
শ্রীলঙ্কা সফরে অধিনায়ক পরিবর্তন করছে না পাকিস্তান
স্পোর্টস ডেস্ক :
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৪:১৭:৫১
প্রিন্টঅ-অ+


বিশ্বকাপের পর অনেক ঘটনাই ঘটে গেছে। পাকিস্তান ক্রিকেটে কোচ বরখাস্ত হয়েছে। প্রধান নির্বাচক ইনজামাম-উল হক পদত্যাগ করেছেন। অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্ব নিয়ে তুমুল সমালোচনা হয়েছে বিশ্বকাপ চলাকালীন। এরপরও দারুণ সমালোচনা হয়েছে তাকে নিয়ে।

কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড অধিনায়ক হিসেবে আস্থা রাখছে সরফরাজ আহমেদের ওপরই। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আসন্ন হোম সিরিজে সরফরাজ আহমেদকেই অধিনায়ক নির্বাচন করেছে পিসিবি। তার ডেপুটি হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে ব্যাটসম্যান বাবর আজমকে।

মাত্র কয়েকদিন আগেই প্রধান কোচ এবং প্রধান নির্বাচক হিসেবে মিসবাহ-উল হককে নিয়োগ দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। যৌথ দায়িত্বে মিসবাহর প্রথম অ্যাসাইনমেন্টই হচ্ছে শ্রীলঙ্কা সফর। যদিও এখনও পর্যন্ত এই সফরটি অনিশ্চিত অবস্থায় পড়ে আছে। কারণ, যে কোনো অবস্থায় সিরিজটি বাতিলও করে দিতে পারে লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড।

বিশ্বকাপের পর থেকেই গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে, নেতৃত্ব হারাতে পারেন সরফরাজও। কারণ, শুধু অধিনায়কত্বছাড়া পিসিবি বাকি সব জায়গাতেই নতুন লোক নিয়ে এসেছে। নেতৃত্বেও পরিবর্তন এনে হয়তো নতুন যুগের সূচনা করবে পাকিস্তান। কিন্তু সব গুঞ্জনকে মিথ্যা প্রমাণিত করে সরফরাজকেই রাখা হলো নেতৃত্বে।

পাকিস্তানের প্রধান কোচ এবং প্রধান নির্বাচক মিসবাহ-উল হক এ নিয়ে বলেন, ‘ধারাবাহিকতাই হচ্ছে আমার মানদণ্ড। এ কারণেই সরফরাজকে অধিনায়ক হিসেবে রেখে দেয়ার সুপারিশ করেছি আমি। একই সঙ্গে অন্য অনেক ক্রিকেটারের চেয়ে আমি সরফরজারকে অনেক ভালোভাবে জানি এবং চিনি। সে আমার নেতৃত্বে অনেকদিন খেলেছে। এ কারণে, জানি তার কাছ থেকে কিভাবে সর্বোচ্চটা বের করে আনা সম্ভব।’

তবে সরফরাজকে নেতৃত্বে রাখলেও অন্য অনেক কাজই নতুনভাবে করতে চান মিসবাহ। তিনি বলেন, ‘ড্রেসিংরুমের পরিবেশ নিয়ে আমি কাজ করবো। সেখানকার পরিবেশ পরিবর্তন প্রয়োজন। আমার কাজ হবে, ম্যাচের ফলাফলের দিকে খেলোয়াড়দের মনযোগকে নিবিষ্ট করা। আমার মনে হয়, এ কাজে সরফরাজই সবচেয়ে যোগ্য ব্যক্তি।’



আমার বার্তা/১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন