শিরোনাম :

  • রেল দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহারের দাবি চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা-সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ আজ চার দিনের সফরে রাষ্ট্রপতি নেপাল যাচ্ছেন ইডেনের ইনডোর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কসবায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক
এবার কাউন্টি খেলতে দেশকে ‘না’ আইরিশ উইকেটরক্ষকের
স্পোর্টস ডেস্ক :
১০ অক্টোবর, ২০১৯ ১১:৩৪:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেট কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে দীর্ঘসময় ধরে খেলার জন্য অনেক ক্রিকেটারই নাম লেখাচ্ছেন কলপাক চুক্তিতে, ছেড়ে দিচ্ছেন নিজ দেশের ক্রিকেটকে। তাদের মধ্যে সবশেষ উদাহরণ হলেন আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান স্টুয়ার্ট পয়েন্টার।

আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার থেকে অবসর না নিলেও, নিজ দেশের ক্রিকেটের চেয়ে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটকেই প্রাধান্য দিয়েছেন পয়েন্টার। জানিয়েছেন এখন আর তিনি আয়ারল্যান্ডের হয়ে খেলবেন না, নামবেন ইংল্যান্ডের কাউন্টি দল ডারহামের হয়ে।

গত সেপ্টেম্বরে কাউন্টি ক্রিকেটে খেলার যোগ্যতার নতুন নিয়ম করতে গিয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে হয় ক্লাব না হয় দেশ- যেকোনো একটিকে বাছাই করতে হবে। তখনই প্রকাশ্যে এ নিয়মের বিরোধিতা করেছিলেন সবশেষ টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে ডারহামের অধিনায়কত্ব করা স্টুয়ার্ট পয়েন্টার।

তবে তার বিরোধিতা ধোপে টেকেনি, তাই সামনের দুই মৌসুমের জন্য ডারহামের সঙ্গে চুক্তি করার জন্য তার সামনে ছিলো না অন্য কোনো পথ। ফলে নিজ দেশের ক্রিকেটকে বাদ দিয়ে কাউন্টিকেই বেছে নিয়েছেন পয়েন্টার। আগামী দুই বছর ডারহামের হয়েই খেলবেন তিনি।

ইসিবির কাউন্টিতে খেলার আগের শর্ত অনুযায়ী আয়ারল্যান্ডসহ ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের পাসপোর্টধারীরা স্থানীয় খেলোয়াড় হিসেবেই খেলতে পারেন এ টুর্নামেন্টে। কিন্তু পরিবর্তিত নিয়মে শুধুমাত্র ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের জন্যই রাখা হয়েছে এ সুযোগ। ফলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের পাসপোর্ট থাকা সত্ত্বেও বিদেশি খেলোয়াড় হিসেবে নিবন্ধন করতে হচ্ছে পয়েন্টারকে।

এদিকে শুধু ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের পাসপোর্টই নয়, জন্মগতভাবেই একজন ইংলিশ নাগরিক ২৮ বছর বয়সী পয়েন্টার। ১৯৯০ সালে লন্ডনের হ্যামারস্মিথে জন্ম তার। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরুর আগে থেকেই খেলে আসছেন আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেটে। ফলে তাকে এবার নিজের দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটেই অংশ নিতে হচ্ছে বিদেশি হিসেবে।

অবশ্য আয়ারল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়েও খুব বেশি কিছু করতে পারেননি পয়েন্টার। ২০১৪ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু করে খেলেছেন ২১টি ওয়ানডে, ২৫টি টি-টোয়েন্টি এবং দেশের অভিষেক টেস্টে। কোনো ফরম্যাটেই নেই ফিফটি, সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৩৯ রান। তিন ফরম্যাট মিলেই ৪২ ইনিংসে ব্যাট করে তার মোট রান ৪২৬।



আমার বার্তা/১০ অক্টোবর ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন