শিরোনাম :

  • দুদক পরিচালকের মৃত্যু : আইসোলেশনে থাকা ছেলের আবেগঘন স্ট্যাটাস শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানালেন করোনা আক্রান্ত প্রিন্স চার্লস রাখী দাশ পুরকায়স্থের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক ফের করোনা পরীক্ষা করাবেন ট্রাম্প
রোমাঞ্চকর এক লড়াইয়ের সমাপ্তি ‘নো’ বলে
স্পোর্টস ডেস্ক :
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১১:৩৫:৫৩
প্রিন্টঅ-অ+


বারবার বদলেছে ম্যাচের চিত্রনাট্য, পেন্ডুলামের দুলেছে ম্যাচের ভাগ্য। কখনও ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আবার কখনও মনে হয়েছে শ্রীলঙ্কাই জিতবে ম্যাচ। শেষপর্যন্ত এ ম্যাচের ফল নির্ধারিত হয়েছে ‘অবৈধ’ এক ডেলিভারিতে।

ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার কেমো পলের নো বলের কল্যাণে রোমাঞ্চকর এক লড়াইয়ের পর ১ উইকেটের শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়েছে শ্রীলঙ্কা। তবে নো বলটি করার ঠিক আগের ডেলিভারিতে ম্যাচে প্রাণ ফিরিয়েছিলেন এ পেস বোলিং অলরাউন্ডারই।

কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ২৮৯ রান করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে শ্রীলঙ্কা ম্যাচ জিতেছে ৪৯.১ ওভারে, তবে হারিয়ে ৯টি উইকেট। শেষদিকে দৃঢ় ব্যাটিংয়ে ৪২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন ভানিন্দু হাসারাঙ্গা।

রান তাড়া করতে নেমে বেশ ভালো শুরু করেছিল লঙ্কান টপঅর্ডার। দুই ওপেনার আভিশকা ফার্নান্দো এবং দিমুথ করুনারাত্নে করেন ফিফটি। তবে দুজনের কেউই ইনিংস বড় করতে পারেননি। আভিশকা ৫০ ও করুনারাত্নে ফেরেন ৫২ রান করে।

এরপর কুশল পেরেরা ৪২, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ ২০, ধনঞ্জয় ডি সিলভা ১৮ ও থিসারা পেরেরা ৩২ রান করলে জয়ের কক্ষেই ছিলো শ্রীলঙ্কা। কিন্তু শেষদিকে উইকেটসংকটে পড়ে তারা।

দলীয় ২৬২ রানের মাথায় পতন ঘটে অষ্টম উইকেটের। তখনও জয়ের জন্য করতে হতো ২৮ রান। লাকশান সান্দাকানের সঙ্গে ২৭ রানের জুটি গড়েন হাসারাঙ্গা।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য মাত্র ১ রান করলেই হতো তাদের। কিন্তু সে ওভারের প্রথম বলেই আউট হয়ে যান সান্দাকান। ফলে জমে ওঠে ম্যাচ। বাকি থাকা ১ উইকেট নিতে পারলেই টাই হতো রোমাঞ্চকর এ লড়াই। কিন্তু ওভারের দ্বিতীয় বলটি নো করে বসেন কেমো পল। ফলে ম্যাচ জিতে যায় শ্রীলঙ্কা।

এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দেয়ার মূল অবদান উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান শাই হোপের। ডানহাতি এ ওপেনার খেলেন ১৪০ বলে ১১৫ রানের ইনিংস।

এছাড়া ডোয়াইন ব্রাভো ৩৯ ও রস্টোন চেজ করেন ৪১ রান। শেষদিকে কেমো পল ১৭ বলে ৩২ ও হেইদেন ওয়ালশ খেলেন ৮ বলে ২০ রানের ক্যামি ইনিংস।



আমার বার্তা/২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০/জহির


আরো পড়ুন