শিরোনাম :

  • রাজপথে তৎপর পুলিশ ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বিদেশি নাগরিকদের ভিসা অন অ্যারাইভাল বন্ধ করোনার সংক্রমণ ঠেকাবে ত্রিফলা, দাবি ভারতীয় বিজ্ঞানীর সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত ইসরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ক্রিকেট চালানোর দায়িত্ব আমাকে দেয়া উচিৎ ছিল : শোয়েব
স্পোর্টস ডেস্ক :
১৮ মার্চ, ২০২০ ১৩:০১:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন প্রায় দশ বছর আগে। সবশেষ স্বীকৃত ক্রিকেটও খেলেছেন প্রায় নয় বছর আগে। এরপর থেকে আর ঠিক সে অর্থে ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত নন পাকিস্তানের গতিতারকা শোয়েব আখতার।

বিচ্ছিন্নভাবে কিছুদিন বিভিন্ন ক্রিকেট একাডেমিতে কোচিং করিয়েছেন ঠিক, কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) তথা দেশের ক্রিকেটে স্থায়ী কোনো জায়গা পাননি তিনি। যা নিয়ে প্রায় নিয়মিতই ক্ষোভ দেখা যায় শোয়েবের কথায়।

পাকিস্তানে শোয়েব না থাকলেও বিশ্বের অনেক দেশেই ক্রিকেট বোর্ডের দায়িত্বশীল সব পদে রয়েছেন সাবেক ক্রিকেটাররা। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি, ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমির দায়িত্বে রয়েছেন রাহুল দ্রাবিড়, দক্ষিণ আফ্রিকার হেড কোচ মার্ক বাউচার, বোর্ড ডিরেক্টর গ্রায়েম স্মিথ, এমনকি জিম্বাবুয়েতেও ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে আছেন সাবেক অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

এসব সাবেক ক্রিকেটারদের উদাহরণ দেখিয়ে এক টক শোতে শোয়েব জানিয়েছেন, তারও আসলে এমন কিছুই করা উচিৎ ছিলো। কিন্তু দায়িত্ব পাননি বলে এখন টেলিভিশনে টকশো করে বেড়াচ্ছেন। যা কখনওই তার নিজের পছন্দ নয়।

এ বিষয়ে শোয়েব বলেন, ‘অভিজাত শ্রেণির মানুষেরা সবসময় চায় তাদের অধীনে যেনো গড়পড়তা মানের লোকেরা থাকে। যাতে করে সহজেই নিয়ন্ত্রণ করা যায়। তারা এমন একজন চেয়ারম্যান চায়, অধিনায়ক চায়- যে কি না অনুগত। কিন্তু আপনার কি এতে চলবে? অনুগত অধিনায়ক কী করবে, তা তো নিজেই ঠিক করতে পারে না।’

দ্রাবিড়-গাঙ্গুলিদের উদাহরণ টেনে শোয়েব আরও বলেন, ‘ভারতীয় বোর্ডের প্রেসিডেন্ট এখন গাঙ্গুলি, রাহুল দ্রাবিড় ন্যাশনাল ক্রিকেট একাডেমির প্রধান। গ্রায়েম স্মিথ দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের প্রধান, মার্ক বাউচার হেড কোচ। কিন্তু পাকিস্তানে এর বিপরীতটা হচ্ছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড আমাকে কখনও ব্যবহারই করেনি। আমার কাজ টিভি শোতে বসে থাকা নয়। তাদের উচিৎ ছিলো আমাকে ক্রিকেট চালানোর দায়িত্ব দেয়া।’



আমার বার্তা/১৮ মার্চ ২০২০/জহির


আরো পড়ুন