শিরোনাম :

  • রাজপথে তৎপর পুলিশ ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বিদেশি নাগরিকদের ভিসা অন অ্যারাইভাল বন্ধ করোনার সংক্রমণ ঠেকাবে ত্রিফলা, দাবি ভারতীয় বিজ্ঞানীর সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত ইসরায়েলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী
করোনাকে ‘কিক’ মেরে তাড়ানোর আহ্বান ইব্রার
স্পোর্টস ডেস্ক :
১৯ মার্চ, ২০২০ ১১:৩৫:৫৮
প্রিন্টঅ-অ+


বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ৮৯৬১ জন। চীনের উহান শহর থেকে শুরু হলেও, বর্তমানে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে ইতালি। এরই মধ্যে দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯৭৮ জন। এছাড়া আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৩৫,৭১৩ জন।

ইতালির এ সংকটময় পরিস্থিতি সামাল দিতে এগিয়ে এসেছেন বর্তমানে এসি মিলানের হয়ে খেলা সুইডেনের তারকা ফুটবলার জ্বলাতান ইব্রাহিমোভিচ। কয়েকদফায় অন্তত ৮ বছর ইতালির ক্লাব ফুটবলে খেলেছেন ইব্রা। সেই দায়বদ্ধতা থেকেই তিনি নিয়েছেন দারুণ এক উদ্যোগ।

এ কিংবদন্তি স্ট্রাইকার শুরু করেছেন সাহায্য সংগ্রহের ক্যাম্পেইন। যেটিকে তিনি নাম দিয়েছেন, ‘কিক দ্য করোনা ভাইরাস’ অর্থাৎ ‘করোনা ভাইরাসকে লাথি মেরে উড়িয়ে দিন’। এ ক্যাম্পেইনের লক্ষ্যমাত্রা হিসেবে প্রাথমিকভাবে ১ মিলিয়ন ইউরো তথা ৯৩ কোটি টাকা সাহায্য সংগ্রহের লক্ক্য নির্ধারণ করেছেন ইব্রা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন, কিক মেরে করোনাকে উড়িয়ে দেয়ার জন্য। এ বিষয়ে এক ভিডিও বার্তায় ইব্রাহিমোভিচ বলেছেন, ‘ইতালি আমাকে সবসময়ই অনেক বেশি দিয়েছে। এখন একটা নাটকীয় সময়। আমি এখন এ দেশটাকে কিছু ফিরিয়ে দিতে চাই।’

সেটি কীভাবে? উত্তর দিয়েছেন ইব্রা নিজেই, ‘আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আমার সঙ্গে যারা আছে তাদের নিয়ে কাজ করবো এবং মানবিক হাসপাতালগুলোর জন্য সাহায্য সংগ্রহ করবো। এ ব্যাপারে আমি আমার যোগাযোগ ক্ষমতাটা ব্যবহার করবো যাতে করে বার্তাটা সবাই পায়। এটা সাধারণ কোনো ভিডিও নয়, খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি সবার ভেতরের মানবিকতার দিকে তাকিয়ে আছি। যাতে করে কিক মেরে ভাইরাসটি উড়িয়ে দেয়া যায়। আমরা সবাই মিলে হাসপাতালগুলোর জন্য দারুণ কিছুই করতে পারবো। এছাড়া যেসব ডাক্তার, নার্স তাদের জীবনের পরোয়া না করে আমাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে- তাদের জন্যও কিছু করা উচিৎ।’

এক মিলিয়ন ইউরো অনুদান পেয়ে গেলে পরে কী করবেন ইব্রা? জানালেন, ‘সকলের ছোট ছোট সাহায্যগুলোই একসঙ্গে অনেক বড় হবে। আমরা মিলান, বারগামো, কাস্তেলাঞ্জা ও তুরিনের হাসপাতালগুলোর ইনটেনসিভ কেয়ারের জন্য দান করবো সব টাকা। এছাড়া প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি যেমনঃ ফার্স্ট এইড, মাস্ক, গাউন এবং প্রটেক্টিভ গিয়ার কিনে দেবো। সবার সাহায্য নিয়ে এই খেলায় আমরা জয়ী হতে পারি।’



আমার বার্তা/১৯ মার্চ ২০২০/জহির


আরো পড়ুন