শিরোনাম :

  • ঢাকায় বাড়তে পারে তাপমাত্রা করোনার ছোবলে এবার চলে গেলেন এসআই মোশাররফ সপ্তাহে তিন দিন ছুটির বিধান আসছে নিউজিল্যান্ডে পেরুতে একদিনেই আক্রান্ত প্রায় ৩ হাজার
আমি দশ বছর আগেই বলেছিলাম, কেউ পাত্তা দেয়নি : শোয়েব
স্পোর্টস ডেস্ক :
২১ এপ্রিল, ২০২০ ১২:৩২:০৬
প্রিন্টঅ-অ+


করোনাভাইরাসের কারণে ক্রিকেট থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছে একটি রীতি। সাধারণত নতুন বলের চাকচিক্য ও উজ্জ্বলতা ধরে রাখার জন্য মুখের লালা বা থুথুর ব্যবহার করে থাকেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু থুথু করোনার বাহক হওয়ায় ভবিষ্যতে এটি নিষিদ্ধ করা হতে পারেই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

পাকিস্তানের গতিতারকা শোয়েব আখতারের দাবি তিনি আরও ১০-১১ বছর আগেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছে এ প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু অন্যরা এটি পাত্তা দেয়নি বলে বৃহৎ পরিসরে তার প্রস্তাব তোলা হয়নি বলে জানিয়েছেন শোয়েব।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে দেয়া এক ভিডিওবার্তায় এ বিষয়ে কথা বলেছেন শোয়েব। তিনি বলেন, ‘আরও ১০-১১ বছর আগেই আমি এক বোর্ডসভায় এ বিষয়টি (বলে থুথু না দেয়া) তুলে ধরেছিলাম। ঐ সভায় কারা ছিল তাদের নাম আমি বলছি না। কিন্তু আমার কথা পাত্তা দেয়নি।’

‘আমি সেখানে বলেছিলাম, বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় ম্যাচের সময় বলে থুথু দেয়। তাদের মধ্যে কারও যদি হাত বা মুখের কোন রোগ থাকে, সেটা তো সবার মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই আমাদের উচিৎ এটা বন্ধ করা। কিন্তু তারা আমার কথা না শুনে উল্টো মজা করেছে এবং আমাকে বলেছে এটি ভুলে যেতে।’

অথচ এখন করোনার আক্রমণের ফলে বলে থুথুর ব্যবহারই একটা বড় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আদৌ আর কখনও বলের চাকচিক্য ধরে রাখতে থুথুর ব্যবহার করা যাবে কি না- সেটি নিয়েও রয়েছে সংশয়।

অস্ট্রেলিয়ান পেসার প্যাট কামিনস এ বিষয়ে বলেছেন, ‘একজন বোলার হিসেবে আমি বলতে পারি, এটি (বলে থুথু দেয়া) করতে না পারলে টেস্ট ম্যাচে আমাদের জন্য অনেক কঠিন হবে। আমরা এখন অবশ্য যে অবস্থায় রয়েছি, তাতে খেলার ব্যাপারে চিন্তা করাও এখন কঠিন।’



আমার বার্তা/২১ এপ্রিল ২০২০/জহির


আরো পড়ুন