শিরোনাম :

  • বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যাত্রাবাড়ীতে ওয়েলডিং মিস্ত্রির মৃত্যু হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম কারাগারে সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলায় নিহত ৫০ ইরানের তেলমন্ত্রীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র
যেসব শিশুরা করোনায় আক্রান্ত তারাও খেতে পারবে ভিটামিন-এ ক্যাপসুল
কক্সবাজার প্রতিনিধি:
০১ অক্টোবর, ২০২০ ১৪:৩৯:০৮
প্রিন্টঅ-অ+


সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে কক্সবাজারে পৌনে ৫ লাখ শিশুকে ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অসুস্থ শিশুরা ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খেতে না পারলেও করোনা আক্রান্ত শিশুর ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খেতে নিষেধ নেই।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফলভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কক্সবাজার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ আয়োজিত সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

সভায় জানানো হয়, কক্সবাজারে ৪ লাখ ৭৯ হাজার ৩৫৩ শিশুকে ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ৪ থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে জেলার ৮ উপজেলা ও ১টি পৌরসভায় এক হাজার ৯৫১ টিকা কেন্দ্রে এই টিকা খাওয়ানোর প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নে জেলায় ২০৮ জন স্বাস্থ্য সহকারী, ১৭৩ জন পরিবার কল্যাণ সহকারী এবং ৫ হাজার ৪০৭ জন স্বেচ্ছাসেবক দায়িত্বে থাকছেন। পুরো ক্যাম্পেইন তত্ত্বাবধানে থাকছেন ২১৬ জন কর্মকর্তা।

সভায় আরও বলা হয়, কক্সবাজারে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৬২ হাজার ৪২৮ শিশুকে খাওয়ানো হবে নীল রঙের এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৪ লাখ ১৬ হাজার ৯২৫ শিশুকে খাওয়ানো হবে লাল রঙের ভিটামিন-এ ক্যাপসুল। ৯টি স্থায়ী এবং এক হাজার ৮৪০টি অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এছাড়াও ভ্রাম্যমাণ টিকাদান কেন্দ্র থাকছে ২৭টি। অতিরিক্ত টিকাদান কেন্দ্র রাখা হয়েছে ৭৫টি।

জেলা সিভিল সার্জন অফিসের স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সিরাজুল ইসলাম সবুজের সঞ্চালনায় সভা উদ্বোধন করেন ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. মহিউদ্দিন মোহাম্মদ আলমগীর।

সিভিল সার্জন বলেন, করোনার প্রাদূর্ভাবকালীন সবার সহযোগিতায় আমরা কক্সবাজারকে তুলনামূলকভাবে নিরাপদ রাখতে পেরেছি। ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইনেও আমরা একই পদ্ধতি অবলম্বনে গুরুত্বারোপ করছি। প্রতিটি টিকাদান কেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মী এবং আগত অভিভাবকদের মাস্ক পরিধানের পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে তাগাদা দেয়া হয়েছে। অতীতের এ প্লাস ক্যাম্পেইনে ৯৯ শতাংশ সফলতা পাওয়া গেছে। এবারও একইভাবে সফল হব বলে আমরা আশাবাদী।

ক্যাম্পেইন উপলক্ষে অবহিতকরণ অনুষ্ঠানে উপস্থাপিত প্রেজেন্টেশনে সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার সৌনম বড়ুয়া বলেন, যেহেতু করোনাকাল চলছে তাই করোনা আক্রান্ত শিশুরা ভিটামিন-এ ক্যাপসুল খেতে পারবে কিনা এ নিয়ে সংশয় কাজ করতে পারে। নির্দেশনা এসেছে করোনা আক্রান্ত শিশুরাও ভিটামিন-এ ক্যাপসুল অনায়েসে খেতে পারবে।



আমার বার্তা/০১ অক্টোবর ২০২০/সাবাব


আরো পড়ুন