শিরোনাম :

  • প্রথম ওভারেই নাসুমের আঘাত করোনায় একদিনে পুরুষের চেয়ে নারীর মৃত্যু দ্বিগুণ নাঈম-মুশফিকের অর্ধশতকে ১৭১ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর‘তিস্তায় মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে
মুন্সীগঞ্জে নির্বাচনকে ঘিরে অস্ত্র, ককটেল ও গোলা বারুদের উপদ্রব
নিজস্ব প্রতিবেদক
১৩ অক্টোবর, ২০২১ ১৮:৪৩:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাচন ঘনিয়ে আসলে দেশীয় অস্ত্র, ককটেল, গোলা বারুদ ও ইয়াবার উপদ্রব বেড়ে যায়। বিশেষ করে চরাঞ্চলে। এতে দেখা দেয় সহিংসতা। 


শুধু নির্বাচন নয় চরাঞ্চলের সামান্য ঝগড়া হলে দেশীয় অস্ত্র, ককটেল ও গোলা বারুদ ব্যবহার করে একপক্ষ আরেক পক্ষকে গায়েল করতে সংঘাতে জড়ায়। আর এসব কিছু যোগান দেয় মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের চরডুমুড়িয়া এলাকার একটি সঙ্ঘবদ্ধদল। 


তারা মূলত টাকার বিনিময়ে একপক্ষের হয়ে আরেক পক্ষের উপর ঝাপিয়ে পড়ে। তাদের কাজ টাকার বিনিময়ে অস্ত্র, ককটেল ও গোলা বারুদ যোগান দিয়ে চলাঞ্চলে সহিংসতা সৃষ্টি করা।   


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যেছে, বাংলাবাজার, চরকেওয়ার, আধারা, শিলই ও মোল্লাকান্দি এ পাঁচ চরে প্রায়  কয়েক লাখ মানুষের বসবাস। এর মধ্যে অল্প সংখ্যক মানুষ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত। রাজনৈতিক সহিংসতা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চরাঞ্চলে সংঘাত লেগে থাকে। এতে একপক্ষকে ঘায়েল করতে আরেকপক্ষ দেশীয় অস্ত্র, ককটেল ও গোলা বারুদ ব্যবহার করে সহিংসতায় জড়ায়। 


এই চলমান সহিংসতায় টাকার বিনিময়ে অস্ত্র, ককটেল ও গোলা বারুদ যোগান দিয়ে সহযোগিতা করে মোল্লাকান্দি ইউপি সদস্য কামাল মেম্বার, মো. রুবেল খান, মাসুদ মাদবর, টুনডা জনি খান ও মোক্তার মাদবরসহ একটি সঙ্ঘবদ্ধদল। তারা মূলত বিষ্ফোরক দ্রব্য দিয়ে চরাঞ্চলে অস্থিতিশীলতা তৈরি করে রাখে। তাদের কারণে ঘটে হতাহতের ঘটনা। প্রাণ হারায় অনেক সাধারণ মানুষ। এ প্রষঙ্গে কামাল মেম্বারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। 


তাদের বিরুদ্ধে কোনো আইনগত ব্যবস্থা না নেওয়া হলে সদর উপজেলার চরাঞ্চলের মানুষের মাঝে কখনো শান্তি ফিরে আসবে না বলে জানিয়েছে এলাকাবাসি। বিষয়টি প্রশাসন আমলে নিয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করার জোর দাবি জানান তারা। 


গত আইনশৃঙ্খলা রক্ষা মিটিং এ পাঁচ চরের চলমান সহিংসতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে এবং সেই সাথে পাঁচ চরে শান্তি বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলারক্ষা বাহিনীকে নিদের্শনা দেন স্থানীয় সাংসদ এড. মৃণাল কান্দি দাস।    


আমার বার্তা/ সি এইচ কে

আরো পড়ুন