শিরোনাম :

  • তিন অতিরিক্ত এসপিসহ সাত এএসপিকে বদলি বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ এনআরসির বিরুদ্ধে জোট বাঁধার আহ্বান মমতার ধর্ষক রাম রহিমের সঙ্গে দেখা করলেন হানিপ্রীত
নারায়ণগঞ্জে শিশু আলিফ হত্যায় একমাত্র আসামির মৃত্যুদণ্ড
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :
২২ জুলাই, ২০১৯ ১৫:১৫:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর ৪ বছরের শিশু শিহাব উদ্দিন আলিফ হত্যা মামলায় একমাত্র আসামি অহিদ মিয়াকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আনিসুর রহমান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত অহিদুল ইসলাম ওরফে অহিদুল্লাহ নোয়াখালী জেলার চরজব্বার থানার চরজব্বার ইউনিয়নের দুই নং ওয়ার্ডের চর হাসান গ্ৰামের মাকসুদের ছেলে। তিনি নারায়ণগঞ্জ শহরের জল্লারপাড়া আমহাট্টা এলাকার খোকন মিয়ার বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করতেন।

নারায়ণগঞ্জের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি ) অ্যাডভোকেট এসএম ওয়াজেদ আলী খোকন বলেন, এই মামলায় ১৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। যুক্তিতর্ক ও সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে আসামি অহিদকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন আদালত।

তিনি আরও জানান, গত বছরের ১৬ আগস্ট শহরের জল্লারপাড় আমহাট্টা এলাকার নান্নু মিয়ার বাড়ির একটি ঘর থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় শিশু আলিফের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘরটি অহিদ ও রিপন নামে দুইজন ভাড়া নিয়ে থাকতেন।

এ ঘটনায় একমাত্র আসামি অহিদুল ইসলামকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে শিশু আলিফকে বাসায় নিয়ে হত্যা করে বস্তাবন্দি করে রাখেন এবং শিশু আলিফের অভিভাবকদের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন ওহিদ। এ বিষয়ে আসামি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

ওই মামলায় বাদী পক্ষে সহযোগিতা করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আলী আহম্মদ ভূঁইয়া।

ঘাতক অহিদ আদালতকে জানায়, সে পেশায় রাজমিস্ত্রি। তার অর্থের প্রয়োজন ছিল, বিধায় সে আলিফকে অপহরণ করেছিল। কিন্তু পরে জানাজানি হওয়ার ভয়ে সে আলিফকে হত্যা করে লাশ বস্তায় ভরে পালিয়ে যায়।



আমার বার্তা/২২ জুলাই ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন