শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
১০ টাকায় ‘গরিরের সুপার শপ’ চালু
২০ এপ্রিল, ২০২২ ১২:৪৪:৩২
প্রিন্টঅ-অ+

চট্টগ্রামে ঈদকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে বিদ্যানন্দের গরিবের সুপার শপ। শুধু ১০ টাকার বিনিময়ে চাল, ডাল, তেল ও তরমুজসহ বিভিন্ন ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে পারবে নি¤œআয়ের মানুষজন।


গতকাল মঙ্গলবার সকালে নগরীর সিআরবি এলাকায় এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন। শুধু ১০ টাকায় পছন্দের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী কিনতে পারবে নি¤œআয়ের মানুষ। 


সুপার শপে নি¤œআয়ের মানুষজন মিষ্টি কুমড়া ১ টাকা, তরমুজ ৮ টাকা, বাংগি ২ টাকা, ডিম ১ টাকা, ছোলা ২ টাকা, মসুর ডাল ৩ টাকা, আটা ২ টাকা, নুডলস ২ টাকা, বিস্কুট ১ টাকা, চিনি ২ টাকা, তেল ৩ টাকা, লবণ ১ টাকা ও খেজুর ২ টাকায় কিনতে পারবেন।


সকালে নগরীর সিআরবি এলাকায় চাল, ডাল, আটা, তেলসহ ১৬ ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী দিয়ে সাজানো হয়েছে সুপার শপ। যার নাম দেওয়া হয়েছে 'গরিবের সুপার সপ'। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নি¤œআয়ের মানুষ আসতে থাকে এ সুপার শপে। 


এ সময় নগরীর তুলাতলি এলাকা থেকে আসা সখিনা বেগম জানান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে সংসার চালাতে কষ্ট হচ্ছে। বিদ্যানন্দের এমন আয়োজনে ১০ টাকায় অনেক জিনিস কিনতে পেরে খুশি তিনি।


এ ছাড়া নগরীর ডেবার পাড় থেকে আসা নুরুল আলম জানান, দাম বেশি থাকার কারণে ইচ্ছা থাকা সত্তে¡ও ইফতারিত তরমুজ খেতে পারছিলেন না। আট টাকায় তরমুজ কিনতে পেরে খুশি তিনি। 


বিদ্যানন্দের বোর্ড মেম্বার মো. জামাল উদ্দিন জানান, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে এমনিতে খারাপ অবস্থা নি¤œআয়ের মানুষের। এই কারণে গরিবের সুপার শপ চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নগরীর ছিন্নমূল, তুলাতলি ও ডেবার পাড় থেকে যারা আসলেই কষ্টে আছেন তাদের চিহ্নিত করে টোকেন দেয়া হয়েছে। যারা টোকেন পেয়েছেন তারাই একমাত্র গরিবের সুপারশপ থেকে জিনিস কিনতে পারবেন।


ঈদের আগ পর্যন্ত সপ্তাহে দুদিন এ আয়োজন করা হবে। দেড়শ মানুষকে পণ্য কেনার সুযোগ দেওয়া হবে এ সুপারশপে।


সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন বলেন, বিদ্যানন্দের এই আয়োজনটি একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তবে সমাজে গরিব নামের কোনো শব্দ যেদিন থাকবে না, সেদিন সবচেয়ে বেশি খুশি হব। গরিবের সুপার শপ নামটা যেদিন মুছে যাবে, সেদিন সবার মধ্যে সাম্যতা থাকবে। তবে, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে এত কম টাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের আয়োজন, সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। 


ঈদের আগ পর্যন্ত সপ্তাহে দুই দিন গরিবের সুপারশপ এ বাজার কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

আরো পড়ুন