শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
অঙ্কনকে মানসিক ভাবে চাপ প্রয়োগ করতো শাকিল, জানিয়েছে বন্ধুরা
জবি প্রতিনিধি
১০ মে, ২০২২ ১৪:৪১:৩৮
প্রিন্টঅ-অ+

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী অঙ্কন বিশ্বাসের মৃত্যুর পর একে একে উঠে আসছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। অসুস্থ হওয়ার আগ থেকেই অঙ্কন মানসিক ভাবে খুবই ভেঙে পড়েছিল বলে জানিয়েছেন তার বান্ধবী সুইটি। সুইটি বলেন অংকন আমাকে কিছুদিন ধরে নিজের কষ্টের কথা শেয়ার করতো এই বলে শাকিল আমাকে শারিরীক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেছে। শাকিল ইদানীং খুব পসেসিভ, কোথাও বের হলে তার কাছ থেকে পারমিশন নিয়ে যেতে হতো। কার সাথে কথা বলবে কার সাথে সম্পর্ক বজায় রাখবে সে বিষয়েও শাকিল হস্তক্ষেপ করতো বলে জানিয়েছে অংকন।


অংকন শাকিলের বিয়ের প্রসঙ্গে তার সহপাঠীরা বলেন, অঙ্কন এ বিয়ে করতে কোন সম্মতি ছিলো না এ বিয়ে করতে এক রকম জোর জবরদস্তি করা হয়। এছাড়াও এ বিয়েতে অঙ্কনের পক্ষে ছিলো না কোন স্বাক্ষী। যারা স্বাক্ষী ছিলো তারা সকলেই ছিলো শাকিলের ঘনিষ্ঠ লোকজন।। 


অঙ্কনের আরেক বন্ধু আবুল মুকিত সানি বলের অঙ্কনের উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করার পরও সে প্রস্তুতি নিতে দেয়নি শাকিল। এছাড়াও নানান সময়ে শাকিল তাদের সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকিও দিয়েছে। এদিকে অংকন যখনই শাকিলের সাথে সম্পর্ক শেষ করার কথা বলেছে তখনই শাকিল তাকে যা নয় তা বলত, এবং বলতো “নেটফ্লিক্স দেখে দেখে তুই দেখি একজনকে ধরে আরেকজনকে ছাড়া শিখেছিস।” মানে ছোট থেকে ছোট ব্যপার নিয়ে খুব মানুষিক অত্যাচার করতো। তাছাড়াও সে অঙ্কনকে হুমকি দিত তাদের সম্পর্কের কথা তার পরিবারকে জানিয়ে দেবে, তাদের কাপলছবি দেখাবে সবাইকে এসব। বলাই বাহুল্য এসব হুমকিতে ভীত হয়ে অঙ্কন নেটফ্লিক্সই দেখা বন্ধ করে দিয়েছিল। এসব কারনে অংকন বেশ কিছুদিন ধরেই শারিরীক ও মানসিকভাবে ভেগে পড়েছিলো। 

আরো পড়ুন