শিরোনাম :

  • বিদ্যুৎ স্বাভাবিক হতে সময় লাগবে ‘৮ থেকে ১০ ঘণ্টা’ ঢাকায় বিদ্যুৎ স্বাভাবিক ‘রাত ৮টার মধ্যে, চট্টগ্রামে ৯টায়’দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আইসিসির সেরা হওয়ার দৌড়ে বাংলাদেশের নাসুমআফগান ক্রিকেট বোর্ডের সিইওকে বিদায় দিল তালেবান
প্রতিটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা বিভাগ চালু করতে হবে : ড. শেখ শফিউল ইসলাম
আশিক মাহমুদ, ঢাকা :
২৮ আগস্ট, ২০২২ ১৭:১৬:২৪
প্রিন্টঅ-অ+

গ্রিন ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের চেয়ারপার্সন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ শেখ শফিউল ইসলাম বলেন, "বাংলাদেশের প্রতিটি পাবলিক, সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ চালু করতে হবে।  দেশ ও আন্তর্জাতিক সাংবাদিকতাকে বস্তুনিষ্ঠ ও একনিষ্ঠতার সাথে এগিয়ে নিতে এর গুরুত্ব অপরিসীম। 


শুক্রবার (২৬ আগস্ট) শ্যাওড়াপাড়ায় অবস্থিত গ্রিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিটি ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া কমিউনিকেশন বিভাগের উদ্যোগে নবনির্মিত ল্যাবের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ ও ডিপার্টমেন্টের চেয়ারপার্সন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ শেখ শফিউল ইসলাম। এর আগে, বিশ্ববিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে ‘বাংলাদেশের উন্নয়ন সাংবাদিকতা : সম্ভাবনা ও প্রস্তুতি’ শীর্ষক এক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। এসময় সভাপ্রধানের বক্তব্যে প্রফেসর ড. শেখ শফিউল ইসলাম এসব কথা বলেন।


এসময় শেখ শফিউল ইসলাম উন্নয়ন সাংবাদিকের প্রয়োজনের তাগিদ দিয়ে বলেন, 'কৃষি, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক উন্নয়ন সাংবাদিকের এদেশে প্রয়োজনীয়তা ব্যাপক।'


এছাড়াও তিনি জনপ্রিয় ও কৃষি সাংবাদিকতার পথিকৃৎ শাইখ সিরাজকে আইডল মেনে  উন্নয়ন সাংবাদিকতার দিকে এগিয়ে যাওয়ার জন্য তাগিদ দেন শিক্ষার্থীদের। তিনি এদেশে হাজারো শাইখ সিরাজের প্রয়োজন বলে জানান।


গ্রিন মিডিয়া ল্যাব ওপেনিংয়ের অন্যতম আকর্ষণ কৃষি সাংবাদিকতার পথিকৃৎ 'চ্যানেল আই' -এর বার্তা সম্পাদক জনাব শাইখ সিরাজ বলেন,  নিজের দেশকে চিনো, নিজেকে চিনো, নিজের আসপাশের মানুষকে চিনো। এসব কিছু চিনে নিজের জন্য কাজ করো, সমাজের জন্য কাজ করো, দেশের জন্য কাজ করো। এসবই তোমাকে স্টার বানিয়ে দিবে। স্টার হওয়ার জন্য সাংবাদিক হওয়ার প্রয়োজন নেই। ভালো মানুষ আর জনসাধারণের জন্য কাজ করেই স্টার হওয়া যায়।' 


এছাড়াও তিনি আগামীর কৃষির শঙ্কট নিয়ে বলেন, 'আগামীর কৃষি বর্তমানের চেয়ে অনেক চ্যালেঞ্জের হবে কিন্তু সে চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলা করার মতো প্রযুক্তি এখনো আমাদের নেই। জলবায়ু পরিবর্তন হলো এক বিশাল চ্যালেঞ্জ। যার প্রভাব ইতোমধ্যেই দেশের অনেক অঞ্চলে পড়তে শুরু করেছে। 


তিনি বলেন, বাংলাদেশে রাজনৈতিক ও অপরাধ সাংবাদিকতা যতটা জনপ্রিয়তা পেয়েছে, কৃষি সাংবাদিকতা ওই অর্থে এখনো পায়নি। যদিও কৃষি উন্নয়ন সাংবাদিকতাই বেশি জরুরি ছিল। 


অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গ্রিন ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর  প্রফেসর ড গোলাম সামদানি ফকির বলেন, দুঃখজনক হলেও সত্য, বাংলাদেশে এখনও কৃষি সাংবাদিকতা পরিপূর্ণভাবে গড়ে ওঠেনি। দেশ ও জাতির জন্য উন্নয়ন বিষয়ক সাংবাদিকতা গুরুত্বপূর্ণ।  আমাদের সকল শিক্ষার্থীদের হৃদয়ে 'মাটি ও মানুষ' কৃষি  উন্নয়ন বিষয়ক অনুষ্ঠান থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে কাজ করা উচিৎ। উন্নয়ন বিষয়ক সাংবাদিকতায় মনোনিবেশ করতে হবে।


উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ফায়জুর রহমান। আলোচনা সভার দুই বিশেষ অতিথি এদেশের কৃষিতে শাইখ সিরাজের অবদান ও সাংবাদিকতার নানা দিক তুলে ধরেন। 


গ্রিন ইউনিভার্সিটি'র লেকচারার মোঃ মেহেদী হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন,  ফ্যাকাল্টি অব আর্টস ও সোশ্যাল সাইন্সের ডিন প্রফেসর ড ফারহানা হেলাল মেহতাব, গ্রিন ইউনিভার্সিটির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ফায়জুর রহমান। এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ অলিউর রহমান , জনপ্রিয় লেখক এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আফজাল হোসাইন খান, জনপ্রিয় ফিল্ম মেকার ও লেকচারার মোঃ শরিফ উদ্দিন ও এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর প্রিতু শরমিন প্রমুখ।

আরো পড়ুন