শিরোনাম :

  • রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ২দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
নিরাপত্তারক্ষীর সংকটে ভুগছে জবি
রিসাত রহমান, জবি প্রতিনিধি:
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৬:০৩:০৯
প্রিন্টঅ-অ+

২০০৫ সালে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হওয়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অপরিপূর্ণতায় ভরপুর। অন্যান্য যেকোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় বেশিরভাগ সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত এই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। অন্যসব সমস্যার সাথে রয়েছে নিরাপত্তার চরম সংকট।


জবির সার্বিক নিরাপত্তা ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজে নিয়োজিত নিরাপত্তারক্ষীর চরম সংকটে ব্যাহত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কার্যক্রম। নিরাপত্তা সুবিধা হতে বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তায় বর্তমান সময়ে নিয়োজিত আছে ১৮ জন রক্ষী, যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজন সর্বনিম্ন ১০২ জন রক্ষী।


অর্থাৎ ৮০ শতাংশ নিরাপত্তারক্ষীর সংকট নিয়েই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম চলছে। নিরাপত্তারক্ষীর সংকটে বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় গেইট সংস্কার এর পর থেকেই বন্ধ হয়ে আছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগতদের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করতে ও ভবনগুলোর প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেও রয়েছে ব্যর্থতা। এর কারণও নিরাপত্তারক্ষীর সংকট।  


জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাস তথা কেরানীগঞ্জে ক্যাম্পাস স্থাপনের যে স্থানটি বর্তমান সেখানেও নিরাপত্তারক্ষী ও নিরাপত্তার সংকট।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমান সময়ে নিয়োজিত নিরাপত্তারক্ষীদের নেই পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা। তাদের নেই কোনো স্টোর হাউজ, নেই রেস্ট রুম। এমনি কি তাদের বসার জন্যও কোনো রুম বরাদ্দ নেই। 


নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সহকারী রেজিস্ট্রার/সমমান জনাব মোঃ সাইদুর রহমান রনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তারক্ষী না থাকায় অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেও তা সফল করা যাচ্ছে না। ইউজিসি তে আবেদন করা হয়েছে অনেকদিন আগেই। কিন্তু এ বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত আসে নি। 


জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগ বর্তমান সময়ে অনেক জরুরি হয়ে দাড়িয়েছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার জন্য রক্ষীর চাহিদা সকলের সমানে বর্তমান থাকা সত্বেও কেনো এই নিয়োগ হচ্ছে না। কেনো ইউজিসি এর উদাসীনতা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তায়?

আরো পড়ুন