শিরোনাম :

  • জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ২দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আইসিসির সেরা হওয়ার দৌড়ে বাংলাদেশের নাসুম
ইলিয়াস কাঞ্চন সিনেমার মানুষদের কটাক্ষ করবেন না
২০ জুলাই, ২০২২ ১৯:০৯:২৯
প্রিন্টঅ-অ+


বাংলা চলচ্চিত্রের ‘মিষ্টি মেয়ে’ খ্যাত অভিনেত্রী কবরীর জন্মদিন পালন করলো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। এদিন রাত ৮টার দিকে এফডিসিতে সমিতির কার্যালয়ে কেক কাটা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সমিতির সভাপতি চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনসহ সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক সাইমন সাদিক ও কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য চিত্রনায়ক অমিত হাসানসহ অনেকে।

কেক কাটার আগে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির রাজ্জাক-কবরী বড় ব্যাপার, কত বড় ব্যাপার সেটা আমরা বলে বোঝাতে পারব না। কাকতলীয় ব্যাপার হলো, আমি যখন এর আগে সেক্রেটারি পদে ইলেকশনে দাঁড়িয়ে পাস করে ক্ষমতায় এসেছিলাম তখন রাজ্জাক ভাইয়ের জন্মদিন ছিল। আর আমি এবারে সভাপতি হয়ে কমিটিতে আসার পরে কবরী আপার জন্মদিন পালন করছি।

লিজেন্ড এই দুজনের জন্মদিন পালন করার দায়িত্বটা কীভাবে যেন আমার এবং আমাদের এই কমিটির ওপর এসে পড়ল।’

তিনি আরও বলেন, যদিও আজ তার জন্মদিন, তবুও মনে পড়ছে তিনি আমাদের মাঝে নেই। এটাই সবচেয়ে বেশি মনে পড়ছে। সেজন্য আমি এবং আমাদের সমিতির পক্ষ থেকে দোয়ার আয়োজন করেছি। আপনারা যারা দেখছেন তারাও দোয়া করবেন; তাকে যেন সৃষ্টিকর্তা কবুল করেন। তিনি অন্য ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে ছিলেন।

আমি দেখেছি আমরা অনেকের সম্পর্কে অনেক কিছু ধারণা করি কিন্তু আমাদের কোরআনে কিন্তু নিষেধ করেছে মনগড়া ধারণা করার ব্যাপারে। সেই ধারণা ভুল হতে পারে। সেই ভুল ধারণার জন্য নিজে গুনাগার হতে পারি। সৃষ্টিকর্তা কখন কার প্রতি সন্তুষ্ট হন আমরা কেউ জানি না। এই বিষয়টা সৃষ্টিকর্তার একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার।

কাউকে আল্লাহ সম্মান দেন আর কাউকে আল্লাহ অসম্মান করেন। এই বিষয়গুলো আছে। আরেকটা বিষয় বলি যাকে ইচ্ছা তাকে তিনি মাফও করে দেবেন। আমরা যারা চলচ্চিত্রের মানুষ তাদের নিয়ে অনেকে অনেক নেতিবাচক ধারণা করেন। কটাক্ষ করেন। এটা করবেন না। আল্লাহতালা সৃষ্টিকর্তা, তিনি কাকে কীভাবে ভালোবাসেন, কীভাবে কবুল করবেন আমরা কেউ জানি না। একদমই তার নিজের ব্যক্তিগত ব্যাপার এটা।

তিনি বলেন, ‘আমরা আজ উনার জন্মদিন পালন করছি। কিন্তু তিনি আমারদের মাঝ থেকে চলে গেছেন। কিন্তু দেখেন সাইমন বললো, অমিত হাসান বললো আপু আপনি যেখানে থাকেন আমরা আপনাকে ভালোবাসি। আমি আবারও বলছি কবরী আপা, রাজ্জাক ভাই আপনাদের স্নেহের কথা ভুলে যাইনি। আমরা যতদিন বেঁচে আছি ততদিন আপনাদের স্মরণ করবো।

ততদিন আপনাদের জন্য দোয়া করবো। আমাদের ভক্তদের বলবো যেন দোয়া করে। সৃষ্টিকর্তার কাছে বলবো আমাদের সবাইকে যেন মাফ করে দেন। আমরা যেন সৃষ্টিকর্তার প্রিয়পাত্র হয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে পারি।’



amar barta /john


আরো পড়ুন