শিরোনাম :

  • সাহারা খাতুনের মরদেহ ঢাকায় আনা হয়েছে আজ দেশের ১৯ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে আজ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস তুরস্কের হাজিয়া সোফিয়ায় ৮৬ বছর পর আজানের ধ্বনি
আপনার সুখের চাবি,আপনার হাতেই
আমার বার্তা ডেস্ক:
২৭ জুন, ২০২০ ১৬:৩১:৫৪
প্রিন্টঅ-অ+




সুখী কে না হতে চায়? আমরা প্রত্যেকেই যে যার মতো সুখে থাকতে চাই। এর মূল চাবিকাঠি রয়েছে নিজের হাতেই। প্রতিদিনের চলার পথ যত বন্ধুরই হোক না কেন, নিজেই পথটা তৈরি করে নিতে পারেন।

আপনার জীবনযাপন হবে নিজের সুখের জন্য, অন্য কাউকে দুঃখ দেওয়ার জন্য নয়। নিজের জীবনে সুখ খুঁজতে গেলে নিচের বিষয়গুলির উপর জোর দিতে হবে-



১. নিজেই বোঝার চেষ্টা করুন। এটাই আপনার সুখী হওয়ার আসল মন্ত্র। কেউ ছবি এঁকে খুশি, কেউ গান গেয়ে, কেউ বা আবার গল্প করে খুশী। আপনার যেটা ভালো লাগে সেটাই করুন, মন-প্রাণ দিয়ে করুন। তবে কাউকে নকল করে খুশি থাকার চেষ্টা করবেন না। আর কারো জন্য নিজের খুশি বিসর্জন দেয়ার চেষ্টা করবেন না।



২. খাতা-কলম নিয়ে বসে একটা তালিকা তৈরি করে ফেলুন আজই। কি কি কাজ আপনি করতে চাইছেন, বা আপনার কি কি ইচ্ছে রয়েছে। এরপর ইচ্ছেপূরণে নিজের মত করে প্রস্তুতি নেয়া শুরু করুন।



৩. জীবনে মানুষ বাছতে শিখুন। যারা অযথাই আপনার দোষ ধরে, আপনার স্বপ্নের কথা শুনে হাসে কিংবা ফেসবুকে জ্ঞানের ঝুড়ি খুলে বসে তাদের ঝেঁটিয়ে বিদেয় করুন। সে বন্ধু, আত্মীয়, শিক্ষক যে কেউ হতে পারে।



৪. যারা আপনাকে সাহস দেবে, সুপরামর্শ দেবে কিংবা- কাঁধে হাত রেখে বলবে, ‘তুই এগিয়ে যা’ এরকম মানুষের সংস্পর্শে থাকার চেষ্টা করুন।



৫. আপনার কোনও সমস্যা হচ্ছে কিনা তা আপনি নিজে যত ভালো বুঝতে পারবেন, অন্য কেউ তা পারবে না। কারণ সবসময় মানুষকে দেখে বোঝা যায় না তার মনে কি চলছে। তাই কোনও সমস্যা হলে আগে তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন এক্ষেত্রে আত্মমর্যাদা দূরে সরিয়ে রাখাই ভালো।



৬. প্রতিদিন ব্যস্ততার ফাঁকে নিজের জন্য কিছু সময় রাখুন। যে সময়টায় আপনি নিজের জন্য ভাববেন। নিজের জীবনে কী করতে পারেন সেই দিকে ফোকাস রাখবেন।



৭. মাঝেমধ্যে নিজেকেই ট্রিট দিন। নিজের জন্য রান্না করুন, শপিংয়ে যান, গাড়ি থাকলে লং ড্রাইভে বেরিয়ে পড়ুন, স্পা করতে যান। মোদ্দা কথা যা মন চায় তাই করুন। কারণ আপনার জীবনে আপনার খুশিই তো সবচেয়ে বড়। তাই একে প্রাধান্য দিন।



৮. নিজের মধ্যে ভালো অভ্যেস গড়ে তুলুন। বাড়ির রান্না করা খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন, যার পুষ্টিমূল্য অনেক বেশি। স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকুন। ওবেসিটি বা স্থূলতা কিন্তু ডিপ্রেশনের লক্ষণ। তাই সময় পেলে হাঁটতে যান। কিংবা সাঁতার কাটুন বা জিম করুন। যেভাবে আপনার সুবিধা হয়।



৯. সূখে থাকার অধিকার আমাদের সবারই আছে। কীভাবে সুখে থাকা সম্ভব সেই উপায়টা কেবল জানা চাই। তাই সবার আগে নিজেকে সুখী ভাবতে শিখুন। প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে নিজেকে বলুন আমি সুখী এবং আমার ইচ্ছাগুলো আমাকেই পূরণ করতে হবে।



আমার বার্তা/ ২৭জুন,২০২০/এসএফসি




 


আরো পড়ুন