শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
দুই সপ্তাহেও সচল হয়নি রমেক হাসপাতালের আইসিইউ
২৮ মার্চ, ২০২২ ১০:৪১:০২
প্রিন্টঅ-অ+

দুই সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ড সচল করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। ফলে সংকটপন্ন রোগীদের মৃত্যুঝুঁকি বাড়ছে। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে সংটাপন্ন রোগীদের করোনা ডেলিকেডিট হাসপাতালের আইসিইউতে পাঠানোর প্রস্তুতি রয়েছে। 


রমেক হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ১০ নভেম্বর রমেক হাসপাতালে আইসিইউ ওয়ার্ড চালু করা হয়। ওয়ার্ডটি চালুর এক দশকেও কোন ধরনের সংস্কার কাজ হয়নি। ফলে যন্ত্রপাতিসহ সব কিছুই ছিল অত্যন্ত নাজুক অবস্থায়। এর ধারাবাহিকতায় গত ১১ মার্চ হঠাৎ করে অক্সিজেন লাইন লিকেজ হয়ে আগুন ধরে যায়। ফলে মারাত্মক দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায় ওই ওয়ার্ডের চিকিৎসাধিন রোগী, ডাক্তার ও নার্সসহ সংশ্লিষ্টরা। তখন গ্যাস আউটলেট ও অক্সিজেন সঞ্চালনে সমস্যা দেখা দেয়। এরপর থেকে দশ শয্যা বিশিষ্ট আইসিইউ  ইউনিট বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। ফলে সংকটাপন্ন রোগী নিয়ে বিপাকে পরে স্বজনরা। ধনী ব্যক্তিরা সংকটাপন্ন রোগীদের বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দিলেও গরিব সংকটাপন্ন রোগীরা বিপাকে পড়ছেন। বর্তমানে ওয়ার্ডটি বন্ধ থাকায় সেখানে কোন রোগী নেই। 


তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছেন- করোনা ডেলিকেডেট হাসপাতালের ১০ শয্যা আইসিইউ বেড খালি রয়েছে। জরুরি রোগীদের প্রয়োজন হলে সেখানে পাঠানো হবে। এদিকে, আইসিইউ বন্ধ থাকায় সঠিক চিকিৎসা না পেয়ে রোগীর মৃত্যু হয়েছে এমন অভিযোগ উঠেছে। 


রংপুরের পীরগঞ্জে সাংবাদিক কামরুল ইসলাম, আব্দুল করিসহ সহ বেশ কয়কজন অভিযোগ করে বলেন, গত বুধবার সন্ধ্যায় পীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও করতোয়া পত্রিকার সাংবাদিক মোকছেদ আলী সরকারকে হৃদরোগসহ বেশ কিছু সমস্যায় অসুস্থ হলে প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে রাত ৯টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। কিন্তু আইসিইউ বন্ধ থাকায় লাইফ সাপোর্টে নেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে সিসিইউতেই তার মৃত্যু হয়। আইিসিইউ বন্ধ থাকায় এধরণের আরও একধিক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। 


আইসিইউয়ের রেজিস্ট্রার ডা. জামাল উদ্দিন মিন্টু জানান, দীর্ঘদিন ওই ওয়ার্ডের যন্ত্রপাতির কোন সংস্কার হয়নি। ফলে গ্যাস আউটলেট ও অক্সিজেন সঞ্চালনে ক্রুটি দেখা দেয়। এই দুটি সংস্কার করা হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, আগামী বুধবার নাগাদ আইসিইউ ওয়ার্ড চালু করা সম্ভব হবে। সংকটাপন্ন রোগী এলে তাদের করোনা ডেলিকেডিট হাসপাতালের আইসিইউতে পাঠানোর প্রস্তুতি রয়েছে বলে তিনি জানান।

আরো পড়ুন