শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
জাহিদুল ইসলাম আযযিহান
একই বই বার বার কিনে ঠকছেন পাঠক
২৫ নভেম্বর, ২০২১ ২১:৩৮:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+


একই বই বার বার কিনে ঠকছেন পাঠক 



চট্টগ্রামের পুস্তক প্রকাশক আয-যিহান পাবলিকেশন-এর সত্ত্বাধিকারী জাহিদুল ইসলাম আযযিহান স্মরণীয় ও বরণীয় ব্যক্তিদের জীবনঘনিষ্ঠ কিছু বই প্রকাশ করে আসছেন। ছড়িয়ে পড়ছে দেশ-বিদেশে। বই নির্বাচন ও প্রকাশ নিয়ে আমার বার্তার সঙ্গে কথা বলেন জাহিদুল ইসলাম আযযিহান। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আমার বার্তার প্রতিবেদক মানজুম উমায়ের।



  


প্রশ্ন : প্রকাশের ক্ষেত্রে কী পদ্ধতিতে বই নির্বাচন করেন আপনারা?


উত্তর : প্রথমে দৈনিক আমার বার্তাকে প্রকাশনার মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আমাকে জিজ্ঞাসার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। প্রকাশনায় বই নির্বাচনের বিষয়টি সম্পূর্ণ প্রকাশক বা প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ পরিচালক ও তাদের চিন্তাধারার উপর নির্ভরশীল। আমি মনে করি প্রতিটি প্রকাশনা শুরুলগ্ন থেকে এক এক ধারায় কাজ করে নিজস্ব একটি পাঠক মহল বা কমিউনিটি তৈরী করেছেন এবং পরে তারা তাদের সেই পাঠকদের চাহিদা মত বই নির্বাচন করেন। এছাড়া প্রকাশক যদি একান্ত মনে করে থাকেন যে সম্পূর্ণ নতুন কোন বিষয়ে তিনি বই প্রকাশ করবেন এবং তা তিনি বাজার ধরতে পারবেন বা এতে কোন সম্ভাবনা রয়েছে সেটাও একান্ত তার ব্যাপার। সর্বোপরি বই বাজার না ধরা পর্যন্ত একজন প্রকাশকের রিস্ক থেকেই যায়।  


 


প্রশ্ন : বিভিন্ন প্রকাশনীতে একই বই বিভিন্ন নামে ছাপা হয়- এ ক্ষেত্রে কোনো কিছু করার আছে কি?


উত্তর : আশা করি মৌলিক বইয়ে এই সমস্যা হওয়ার কথা না। তবে অনুবাদ বইয়ে বিষয়টি এখন অহরহ। দেখা যাচ্ছে বাজারে একই বই দু’টি প্রকশনা থেকে অনুবাদ হয়ে ভিন্ন দু’টি নামে প্রকাশ হলো। এতে অনেক সময় একজন পাঠক একই বইয়ের দু’টি অনুবাদ ক্রয় করে ফেলছেন ভিন্ন বই মনে করে। এতে করে একজন পাঠক প্রতারিত হচ্ছে। 


প্রকাশক, অনুবাদক এবং একই সাথে পাঠকদেরও একটু সচেতন হলেই আমি মনে করি এর থেকে পরিত্রাণের উপায় রয়েছে। যেমন আমরা আয-যিহান পাবলিকেশনে অনুবাদ বইয়ের ক্ষেত্রে যেটা করি সেটা হলো, বইয়ের মূল কভার উল্টাতেই প্রথম পৃষ্ঠায় অনূদিত নামের উপরে মূল বইয়ের নামটা সংযুক্ত করে দেই। এতে করে একজন পাঠকের সহজে চোখ পরে এবং বুঝতে দেরি হয় না-এটি কোন্ বইয়ের অনুবাদ। একজন সচেতন পাঠককে বলবো, প্রতিটি বই যেন তিনি ফ্ল্যাপ ও ভূমিকা পড়ে নেন। এতে যথেষ্ট পরিমাণে বই পরিচিতি থাকে।


 


প্রশ্ন : আকাবিরকে তুলে ধরার প্রয়াসে আপনাদের উদ্যোগ কতটুকু?


উত্তর : আকাবির বা আমাদের পূর্বপুরুষদের ইতিহাস ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে পারা আমি মনে করি নিঃসন্দেহে একটি প্রকাশনার জন্য গর্ব ও গৌরবের কাজ। আলহামদুলিল্লাহ, আমরা ইতোপূর্বে সেই গৌরবের অংশ হতে পেরেছি। আমাদের অলরেডি আকাবির সিরিজ নামে ৫ ভলিউমে একটি স্বতন্ত্র সিরিজ রয়েছে। এতে স্থান পেয়েছে প্রাচীন বিদ্যাপীঠ জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়ার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আল্লামা মুফতি আযিযুল হক রহ.-এর সমৃদ্ধ জীবনীগ্রন্থ তাযকেরায়ে আযিয [বাংলা], আল্লামা হারুন ইসলামাবাদী রহ.-এর জীবনকর্ম অবদান, আল্লামা সুলতান যওক নদভি হাফিজাহুল্লাহর আত্মজীবনী আমরার জীবন কথা-১ ও দুই খণ্ডে চট্টগ্রামের শত বছরেরও পুরানো ৩৮ জন সম্মানিত আকাবিরদের জীবনী সমৃদ্ধ মাশায়েখে চাটগাম। সামনে এই সিরিজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার ইচ্ছে রয়েছে ইনশাআল্লাহ। শীঘ্রই আসছে এই সিরিজের আমার জীবন কথা-২।


 


প্রশ্ন : ছোটদের ও রাষ্ট্র নিয়ে বই প্রকাশের ভাবনা আছে কি?


উত্তর : ছোটদের নিয়ে কিছু করা, শিশুতোষ সাহিত্যকে আলাদা শিল্প এবং আর্ট হিসেবে মনে করি। অনেক প্রকাশনী শুধু এই বিষয়ে কাজ করছেন। তবে বিশালাকার না হলেও আমাদের বর্তমানে ৭-১০ বছরের বাচ্চাদের জন্য উপযোগী ৫ খণ্ডে গল্পে আঁকা রাসূলের মুজিযা নামে একটি সিরিজ বইয়ের কাজ চলছে। শীঘ্রই ফেব্রুয়ারি নাগাদ সিরিজটি প্রকাশিত হবে ইনশাআল্লাহ। এছাড়া ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে দু’টি বই আসবে সামনের একুশে বইমেলায় ইনশাআল্লাহ। সামনে রাষ্ট্রের ইতিহাস ঐতিহ্য নিয়ে একক কাজ করারও ইচ্ছা আছে।


 

আরো পড়ুন