শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
দাম্পত্য জীবন জটিল-১
০৯ মার্চ, ২০২২ ১১:২২:৪১
প্রিন্টঅ-অ+

সেদিন অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞ দেখানের জন্য একটি ক্লিনিকে গেলাম। চেম্বারের সামনে অপেক্ষমাণ রোগীদের ভিড়। কারও হাত ভাঙা, কারও পা, আবার কারও ভাঙা আমার মতো দৃশ্যমান নয়। ভিড় এড়াতে আমি পেছনের দিকে গিয়ে চেয়ারে বসলাম। সিরিয়াল অনুযায়ী ডাক পড়লে ডাক্তারের দেখা পাব। কিছুক্ষণ পর এক যুবক কুঁজো হয়ে হাঁটতে হাঁটতে আমার পাশে এসে বসল। মাস্ক পরা থাকায় আমি তাকে চিনতে পারিনি। নাক চুলকাতে উভইয় বেশ কয়েকবার মাস্ক খুললাম। তখন দুজনের চেহারা দৃশ্যমান হলো। যুবকটি আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছোট ভাই নয়ন। আমি আতঙ্কিত কণ্ঠে জিজ্ঞেস করলাম, ‘তোমার এমন দশা কী করে হলো?’


নয়ন বলল, ‘ভাই, তেমন কিছু না।’


‘বাঁকা হয়ে আছ কেন? পিঠে কোনো সমস্যা নাকি?’


‘হা, না, হা, না...।’ নয়নের বিভ্রান্তিকর উত্তর।


অর্থোপেডিক্স ডাক্তারের পাশের চেম্বার চর্ম ও অন্যান্য জটিল রোগ বিশেষজ্ঞের। আমি ওকে সেটা দেখিয়ে বললাম, ‘এসব সমস্যা নাকি?’


নয়ন হেসে বলল, ‘ভাই, আপনি যা ভাবছেন তা নয়।’


‘তাহলে এলার্জির সমস্যা নাকি? দেখি তোমার হাত। আরে তোমার হাত দেখি খসখসে হয়ে আছে। চর্ম রোগ বাধালে নাকি?’


নয়ন তার হাত ছাড়িয়ে নিয়ে হাসতে হাসতে আরও কুঁজো হয়ে গেল। আমি চিন্তায় পড়ে গেলাম। তাহলে কী নয়নের মানসিক সমস্যা হয়েছে! আমাকে চিন্তামুক্ত করতে নয়ন বলল, ‘ভাই, হাতের চামড়ার চেয়ে শরীরের চামড়ার পুরুত্ব আরও বেশি। বিয়ের বয়স দুবছর পার হচ্ছে, এতদিন কি চামড়া কোমল থাকে?’


‘মানে!’


‘ভাই, বিয়ের মাসখানেক চামড়া ঠিক ছিল। তখন সংসারে অশান্তি লেগেই থাকত। যখন দেহের চামড়ার পুরুত্ব বাড়ল সব ঠিকঠাক। গÐারের চামড়া বুলেট প্রুফ। আমার চামড়া গালি প্রুফ। কোনো কথাই গায়ে লাগে না।’


‘তার মানে হাড়ে সমস্যা?’


‘ভাই, চামড়া শক্ত হলেও হাড় এখনো শক্ত হয়নি। সে কারণেই সমস্যা।’


‘হলো কেমন করে?’


‘ভাই, কদিন আগে ফেসবুকে একটা ছবি ভাইরাল হয়েছিল। এক যুবক তার স্ত্রীকে পিঠে নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সেই ছবি দেখার পর আমার বউ বলল, দেখো মানুষ বউয়ের জন্য কত কিছু করে!’


আমি বললাম, ‘ওই লোকের স্ত্রী হাঁটতে পারতেন না। আর ছবির পেছনের কাহিনি ভিন্ন।’


‘বউ বলল কাহিনি জেনে লাভ নাই। তোমাকে বলছি না আমাকে পিঠে নিয়ে রাস্তায় ঘুরতে। মাঝে মধ্যে এক রুম থেকে অন্য রুমে তো নিতে পার। শান্তি বজায় রাখতে কদিন সেটা করলাম। সত্তর-আশি কেজি ওজনের মানুষ পিঠে নেওয়া কম কথা না ভাই। সপ্তাহখানেকের মধ্যে আমার মেরুদÐ হালকা বাঁকা হয়ে গেল। মনের কষ্টে একদিন সব লিখে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলাম। তা দেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক স্যার পরামর্শ দিলেন, স্বামীকে কাঁধে নিয়ে ঘুরছে এমন ছবি বউকে দেখাতে। স্যারের পরামর্শ পছন্দ হলো। ছবির জন্য দুজন মডেলকে টাকার বিনিময়ে রাজি করালাম। মোবাইলে তাদের ছবি তুলে বাসায় এনে দেখালাম বউকে। বউ বলল, এটা কোনো ব্যাপার না। স্বামীর জন্য এটুকু কাজ করতে সে রাজি। তারপর একদিন রাতে বউ আমাকে কাঁধে উঠতে সাদরে আমন্ত্রণ জানাল। আমি মনে মনে স্যারকে ধন্যবাদ জানিয়ে উঠে গেলাম কাঁধে।’


‘দারুণ কাজ করেছ তুমি।’


‘দারুণ কাজ করেই আজ আমার করুণ পরিণতি! বউ ঘরে এক চক্কর দিয়ে আমাকে সরাসরি ফ্লোরে ফেলে দিল। প্রায় ছয় ফুট উঁচু থেকে পড়ে আমার আধবাঁকা হাড় ধনুকের মতো বেঁকে গেল। কদিন বিছানায় শুয়ে থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি। তেমন উন্নতি হচ্ছে না দেখে আজ অর্থোপেডিক্স ডাক্তারের কাছে এসেছি। আমার কথা তো শুনলেন। আপনার সমস্যা কী?’ আমি বললাম, ‘দীর্ঘদিন সংসার জীবনে আমার চামড়া ও হাড় দুটিই পোক্ত হয়েছে। তবে এক জায়গায় বারবার আঘাত হলে তার দখল সামলানো যায় না। আমার সমস্যা দৃশ্যমান না হলেও যন্ত্রণা তোমার চেয়ে কম না। তোমার সঙ্গে আমার বউয়ের পরিচয় আছে। সব বলার মতো ঝুঁকি নিতে পারছি না। বাকিটা ডাক্তরকেই বলব।’

আরো পড়ুন