শিরোনাম :

  • রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ২দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
বিশ্বাস করুন তাঁরা বেহেশতেই আছেন!
১২ আগস্ট, ২০২২ ২২:০৯:২১
প্রিন্টঅ-অ+

আচ্ছা। আগে বলুন তো বেহেশত মানে কি? সুখ শান্তির জায়গা। তাই তো। যেখানে আপনি থাকবেন চিরযৌবনা। মনে মনে যা ইচ্ছে করবে, তাই পাবেন৷ থাকবে না কোন কাজ কর্ম। আপনাকে ঘিরে থাকবে সব হুর পরীর মতই কোন না কোন নারী৷ আর নারীদের বেলায়ও থাকবে পুরুষ হুর/জিন। তাহলে আসুন ভাবনার জগতে যাই। 


ধরুন আপনি একজন শীর্ষ ধনী।  সারা বছর আপনার ঘর থেকে না বেরুলেও চলে। আপনার বহু প্রজা আছে। যারা আপনার সেবায় নিয়োজিত।  বাজারেও যাওয়া লাগে না৷ রান্না বান্নার জন্য আলাদা লোক আছে৷ চাইলে নারী গভর্নেন্স রেখে আপনি তাদের দ্বারা সব রকম সেবাও নিতে পারেন৷ আবার আপনি নারী শিল্পপতি বা ধনী হলে নায়কের মত পুরুষকে রাখতে পারেন কাজের জন্য। 


এবার ভাবুন তো এ দেশের কোন এমপি, মন্ত্রী, শীর্ষ ধনী, মাঝারি ধনী, শীর্ষ রাজনীতিক কারো কি টাকার অভাব আছে? তাদের কি বাজারে যাবার দরকার হয়৷ তারা কি গরমে ঘেমে কষ্ট পান কখনো। নিশ্চয়ই নয়। তারা যা ইচ্ছে করতে পারেন৷ এই ধরুন তেলের দাম বাড়ানো কমানো। যেখানে ইচ্ছে ছুটে যেতে পারেন যখন তখন।  মনে চাইলে সকালে দুবাই, বিকালে সিংগাপুর, রাতে মালয়েশিয়া।  কোনটা পারা যায় না টাৃকা থাকলে। আর আমাদের এখানে এৃমন একজনও মন্ত্রী, এমপি, রাজনীতিক শীর্ষ কিংবা মধ্য সারির এমন কি নিম্ন সারির কোন নেতাটা আছে যিনি কোটিপতি নন৷ এবং এর বেশিরভাগ অর্থই আয় করেছেন কোথা থেকে তা জানেন না নিজেও৷ অতএব, তারা তো এক রকম বেহেশতেই থাকেন৷  


আর এটা খুবই স্বাভাবিক যে মানুষ সব সময় নিজের মতো করেই পৃথিবীটাকে দেখেন। যার দৃষ্টিভংগী যেমন তিনি তেমনই দেখেন। কেউ দেশটাকে দেখেন বেহেশত হিসেবে আবার কেউ দেখেন অন্য কিছু হিসেবে। হিসাবটা তো খুবই সিম্পল। তাই না!


লেখক : সিনিয়র সাংবাদিক

আরো পড়ুন