শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিএনপি-জামায়াত : নাছিম
০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২ ১১:৩৩:৪৪
প্রিন্টঅ-অ+

বিএনপি-জামায়াত বাংলাদেশ বিরোধী রাজনৈতিক দল। এই দুটি দল সব সময় দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। গতকাল শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে নতুন ভবনের নিচতলায় জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় উদ্বোধন করে তিনি এসব কথা বলেন।


বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, বিএনপি-জামায়াত বাংলাদেশ বিরোধী রাজনৈতিক দল। তারা কখনো দেশের মঙ্গল চায় না। সব সময় দেশের ক্ষতি করতে চায়। তারা সব সময় দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে। এখনো তাদের ষড়যন্ত্র থেমে নেই। বিএনপি সব সময় বিদেশিদের কাছে গিয়ে ধর্না দেয়। তারা পরাশক্তির কাছে নালিশ করে। লবিস্ট নিয়োগ করে কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করে। বিদেশিদের টাকা দেয় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার জন্য। অর্থনীতিকে বাধাগ্রস্ত করতে তারা বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করেছে। এর আগে খালেদা জিয়াও নিবন্ধ লিখে জিএসপি সুবিধা নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন। তাদের সব ষড়যন্ত্র রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করা হবে।


আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতীয় শ্রমিক লীগ সব সময় বাংলাদেশের মানুষের জন্য কাজ করে এসেছে। শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ে শ্রমিক লীগ সব সময় পাশে ছিল। শ্রমিক লীগ বাংলাদেশের মেহনতি মানুষের কণ্ঠস্বর।


তিনি আরও বলেন, শ্রমিক লীগ এদেশের সব থেকে বড় জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব করে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শ্রমজীবী মানুষের জন্য শ্রমিক লীগকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিতেন। তাই শ্রমিক লীগ এ দেশের মানুষের দৃষ্টিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সংগঠন। এ সংগঠন সব সময় তার দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছে। ৬৯ গণঅভ্যুত্থানে এ সংগঠনের মনু মিয়া প্রথম জীবন দিয়েছে এটা সবাইকে মনে রাখতে হবে।


আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আজ ঐতিহাসিক ৫ ফেব্রæয়ারি। ১৯৬৬ সালের এদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের লাহোরে অনুষ্ঠিত বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর এক সম্মেলনে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ছয় দফা দাবি পেশ করেন। ওই ছয় দফা বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ। ছয় দফা মূলত স্বাধীনতার এক দফা ছিল। ছয় দফার মধ্যেই স্বাধীনতার বীজ নিহিত ছিল।


অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, যেকোনো সংগঠনের মধ্যে মতবিরোধ থাকে। পরিবারের মধ্যেও মতবিরোধ থাকে। পৃথিবীর যেকোনো সমাজ ব্যবস্থায় মত পার্থক্য থাকতে পারে। কিন্তু আমদের মনে রাখতে হবে আমরা বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি আমাদের বিশ্বাস রয়েছে। শেখ হাসিনাকে সামনে রেখে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আমরা আর আগের ভুল বোঝাবুঝির জায়গায় ফিরে যেতে চাই না। আমরা শুধু সামনে এগিয়ে যেতে চাই।


শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ কে এম আযম খসরুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খানসহ শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

আরো পড়ুন