শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
দেশে সিন্ডিকেটের শাসন চলছে : চরমোনাই পীর
২৮ মার্চ, ২০২২ ১০:৪৬:১৮
প্রিন্টঅ-অ+

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই বলেছেন, স্বাধীনতার ৫১ বছরে দেশে দুর্নীতি বন্ধ হয়নি বরং বৃদ্ধি পাচ্ছে। দুর্নীতিবাজরা সরকার ও রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ স্থন দখল করে থাকায় দেশে সুশাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়নি। দুর্নীতিবাজদের কারণে দেশের সব জায়গায় সিন্ডিকেটের শাসন চলছে। দেশকে দুর্নীতি মুক্ত করা না গেলে মানুষের রক্তচোষা সিন্ডিকেট বন্ধ করা যাবে না।


গতকাল রোববার দুপুরে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভা ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ সভাপতি শহিদুল ইসলাম কবির অনুষ্ঠানে সভাপতিত্বে করেন।


শায়খে চরমোনাই মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, যেই দেশের প্রধান বিচারপতি বিচার না পেয়ে দেশ থেকে পলায়ন করে সে দেশে আমরা ন্যায়বিচার আশা করি কিভাবে? তিনি বলেন, যারা দেশের জন্য জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধ করেছে তারাও সিন্ডিকেট ও দুর্নীতিবাজদের হাতে জিম্মি হয়ে স্বীকৃতি বঞ্চিত। অনেক ক্ষেত্রে সিন্ডিকেটের লোকরা দুর্নীতির মাধ্যমে আওয়ামী লীগে সদস্য অমুক্তিযোদ্ধাকে মুক্তিযোদ্ধা এবং আওয়ামী লীগের বাইরের প্রকৃতি মুক্তিযোদ্ধাকে অমুক্তিযোদ্ধা বানাচ্ছে।


তিনি বলেন, কথা ছিলো গরিব ধনী-মালিক-শ্রমিক, সরকারি দল, বিরোধী দলের মধ্যে ভেদাভেদ থাকবে না। থাকবে না ধর্মীয় কোন ভেদাভেদ। কিন্তু স্বাধীনতার ৫১ বছরে ভেদাভেদ চরমে পর্যায়ে পৌঁছেছে। সাম্য, মানবাধিকার ও সুশাসন নেই। হাজারও মানুষ খোলা আকাশের নীচে বসবাস করছে। আশরাফুল মাখলুকাত মানুষ ডাস্টবিনের পাশে খোলা আকাশের নীচে কাক-কুকুরের সাথে খাদ্যের জন্য লড়াই করছে। হাজারো মানুষ বস্ত্র, চিকিৎসার জন্য হাহাকার করছে। সাম্য আজ কোথায়?


তিনি আরও বলেন, কিছু মানুষের কাছে সিংহভাগ অর্থ আর সিংহভাগ মানুষ নিরবে অর্ধাহার, অনাহারে নিরব দুর্ভিক্ষে মারা যাচ্ছে। এমন অবস্থার জন্য জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধারা মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেনি। স্বাধীনতা সংগ্রাম হয়েছে সমতার জন্য। তিনি বলেন, একই দেশে বসবাস করে সরকারি দলের লোকদের জন্য মর্যাদা আর বিরোধী দলের লোকদের জন্য লাঞ্চনা এটা সাম্য নয়।

আরো পড়ুন