শিরোনাম :

  • রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ২দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
সবার জন্য অর্থনৈতিক সুযোগ তৈরিতে ফিউচার নেশন’র উদ্বোধন
সাহেদুজ্জামান সাকিব
০৭ আগস্ট, ২০২২ ১৭:২০:৫৯
প্রিন্টঅ-অ+

দেশের পপুলেশন ডিভিডেন্ডের সুবিধাকে অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তিতে রূপান্তরের মাধ্যমে ভবিষ্যতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করেছে ‘ফিউচার নেশন’। এ কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে রোববার (৭ আগস্ট) রাজধানীর হোটেল শেরাটনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 


'ফিউচারনেশন: গ্র্যাজুয়েট এমপ্লয়মেন্ট ইন প্রাইভেট সেক্টর প্রোগ্রাম' শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, ইউএনডিপি'র (টিবিসি) স্ট্র্যাটেজিক অ্যাডভাইজার রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি, ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি এবং গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান।


বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আগামী ১০ বছরে ৫ মিলিয়ন মানুষের পেশা ঝুঁকির মুখে পড়বে। তবে ১০ মিলয়ন মানুষের জন্য তৈরি হবে নতুন পেশা। এ জন্য প্রয়োজন হবে দক্ষতার উন্নয়ন ও সফট স্কিল অর্জন। আর সেই দক্ষতা অর্জনের পাশাপাশি স্মার্ট বাংলাদেশকে নেতৃত্বস্থানীয় পর্যায়ে নিয়ে আসতে ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের সঙ্গে যৌথভাবে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ৪ আইআর সেন্টার ফর এক্সিলেন্স স্থাপন করা হবে।


অনুষ্ঠানে আয়োজকরা ফিউচারনেশন গঠনের মূল লক্ষ্য উদ্দেশ্য সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরেন। তারা বলেন, ফিউচারনেশনের লক্ষ্য সম্ভাবনাময় এ মানবসম্পদকে শক্তিশালী ইকো সিস্টেমের মাধ্যমে দক্ষ করে তোলা; যেন ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের সবার জন্য অর্থনৈতিক সুযোগ তৈরি করা সম্ভব হয়। এ প্রোগ্রাম থেকে নিজেদের দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি করে তরুণরা দেশ ও দেশের বাইরে উচ্চ-বেতনের চাকরি করতে পারবেন, তাদের উচ্চ আয়ের সম্ভাবনা বাড়বে এবং তারা দেশের অর্থনীতিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে ভূমিকা রাখতে পারবেন।


অনুষ্ঠানে 'গ্র্যাজুয়েট এমপ্লয়মেন্ট চ্যালেঞ্জেস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে বক্তব্য রাখেন বিডার নির্বাহী সদস্য মোহসিনা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ, বেসিসের চেয়ারম্যান রাসেল টি আহমেদ, ইউনিলিভার বাংলাদেশ ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাভেদ আখতার, ইউএনডিপির পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী, টেলিনর মালকোর ইনভেস্টমেন্ট ডিরেক্টর হাকোন ব্রুন্মাসেত জোল, ইউএনডিপি বাংলাদেশের কান্ট্রি ইকোনমিস্ট নাজনীন আহমেদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিই সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক রাশেদুর রহমান।


এবি/এসএ

আরো পড়ুন