শিরোনাম :

  • রোকেয়ার আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে নারীরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে : প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল : রাষ্ট্রপতি বেগম রোকেয়া দিবস আজ উগ্রবাদবিরোধী জাতীয় সম্মেলন শুরু হচ্ছে আজ
সদরপুরে ছেলেকে মধুর সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাওয়ালেন মা
ফরিদপুর প্রতিনিধি :
১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১৫:২৭:৩০
প্রিন্টঅ-অ+


ফরিদপুরের সদরপুরে আট বছরের এক ছেলেকে মধুর সঙ্গে বিষ খাইয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার সৎমায়ের বিরুদ্ধে। উপজেলার আকোটেরচর ইউনিয়নের রমজান মোল্যার ডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শনিবার (১৬ নভেম্বর) সকালে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত শিশুটির নাম তানিম (৮)। সে ওই এলাকার ইব্রাহীম মোল্যার ১ম স্ত্রীর সন্তান। এ ঘটনায় সদরপুর থানা পুলিশ সৎমা স্বপ্না বেগমকে (২৫) আটক করেছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার আকোটেরচর ইউনিয়নের রমজান মোল্যার ডাঙ্গী গ্রামের বাসিন্দা ইব্রাহিম মোল্যার প্রায় দুই বছর পূর্বে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটে। ওই সংসারে তানিম নামে এক সন্তান ছিল। এরপর ইব্রাহিম মোল্যা দ্বিতীয় বিয়ে করেন একই উপজেলার ভাষাণচর ইউনিয়নের পবনখার ডাঙ্গী গ্রামের সরোফত উল্লাহ খানের মেয়ে স্বপ্না বেগমকে। তাদের দেড় বছরের সংসারে আরও এক কন্যা শিশুর জন্ম হয়।

স্বপ্না বেগম বাড়িতে আসার পর থেকেই তানিমকে সহ্য করতে পারত না। একপর্যায়ে সবার অজান্তে গত মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে শিশু তানিমকে মধুর সঙ্গে বিষ মিশিয়ে খাইয়ে দেন সৎমা স্বপ্না বেগম।

তানিম অসুস্থ হয়ে পড়লে তার দাদা আক্কাছ মোল্যা তাকে পার্শ্ববর্তী চরভদ্রাসন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বাড়িতে আসার পর শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সদরপুর হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সদরপুর হাসপাতাল থেকে ফরিদপুর শিশু হাসপাতালে স্থানান্তর করে সদরপুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ফরিদপুর শিশু হাসপাতালে তানিমের শারিরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকার শিশু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পথে পথিমধ্যে শুক্রবার রাতে (১৫ নভেম্বর) শিশুটির মৃত্যু হয়।

এদিকে শিশুটির মরদেহ শুক্রবার ভোররাতে ঢাকা থেকে বাড়িতে আনা হলে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি ফরিদপুর মর্গে পাঠায় সদরপুর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা ইব্রাহীম মোল্যা বাদী হয়ে স্ত্রী স্বপ্না বেগমের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা বলেন, শিশুটির বাবা বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। সৎমা স্বপ্না বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নির্মম এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



আমার বার্তা/১৬ নভেম্বর ২০১৯/রহিমা


আরো পড়ুন