শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
গোপালপুর উপজেলার হেমনগর ইউপি নির্বাচন
নৌকার মনোনয়ন পেতে ৪ নেতার দৌড়ঝাঁপ
হাফিজুর রহমান
১৭ নভেম্বর, ২০২১ ১৩:৩৮:১২
প্রিন্টঅ-অ+

টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার হেমনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রতিক পেতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের মাঝে দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। গণসংযোগে মুখরিত ইউনিয়নের প্রতিটি পাড়া মহল্লায়। নেতারা প্রতিনিয়ত ছুটছেন ভোটারের কাছে। 


এ ইউনিয়নটি টাঙ্গাইল থেকে ৫২ কিমি উত্তরে অবস্থিত। ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে এ ইউনিয়নের ৮,৩৩১ টি পরিবারের জনসংখ্যা ৩৩,৩৯৮ জন। শিক্ষার হার (বয়স ৭ এবং তার বেশি) ছিল ৪৫.৯% (পুরুষ: ৪৮.১%, মহিলা: ৪৩.৯%)। ১৯০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত জমিদার হেমচন্দ্রের নামে প্রতিষ্ঠিত ইউনিয়নটি এখন ৮ নং হেমনগর ইউনিয়ন পরিষদ।


ক্ষমতাসীন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা শুরু করেছেন গণসংযোগ। দল থেকে মনোনয়ন পেতে ছুটছেন জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে।


হেমনগর ইউপিতে নৌকাপ্রত্যাশী বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য রওশন খান আইয়ুব তিনি এলাকায় অনেক উন্নয়ন মূলক কাজ করেছেন ইতেপূর্বে।


ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আনিছুর রহমান তালুকদার হিরা, হেমনগর ইউনিয়ন এর ত্যাগী নেতা জেল জুলুম বাড়ী ঘর ভাংচুরের শিকার হন তার পরিবার। টাঙ্গাইল জেলার গোপালপুর উপজেলাধীন ৮নং হেমনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থানীয় সরকার কর্তৃক আসন্ন আগামী ১১ই এপ্রিল-২০২১ শুরু থেকে পর্যায়ক্রমে ৯ ধাপে ইসির ঘোষিত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত নির্বাচনে প্রথম সারির নাগরিক বিশিষ্ট সমাজ সেবক বর্তমানে হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ২০ বছর যাবৎ দায়িত্ব প্রাপ্ত সফল সাধারণ সম্পাদক, গোপালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য, আওয়ামীলীগের লড়াকু সৈনিক গনমানুষের ব্যক্তিত্ব ও সুশিক্ষিত মেধাবী হাজী মোঃ আনিছুর রহমান তালুকদার হিরা। হেমনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে অংশগ্রহণের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ব্যাপক ভাবে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি নির্বাচনী এলাকায় সভা, সমাবেশ, সংষ্কৃতিক, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ও গরীব দুঃখীদের মাঝে মহামারী করোনা ভাইরাসে আর্থিক সহযোগীতা করেছেন। উল্লেখযোগ্য এলাকার কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা হচ্ছেন, ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি টোকাজ্জ্বল হোসেন (তপু), বেলায়াত হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা জহির উদ্দিন, অবঃপ্রাপ্ত সাবরেজিষ্ট্রার মনছুর আলম, মসজিদের ইমাম হযরত মওলানা আব্দুল আজিজ,। আনিছুর রহমান তালুকদার হিরা ছাত্র জীবন থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের তৎকালীন সক্রিয় কর্মী । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত ও বাস্তবায়ন করতে বদ্ধপরিকর। তিনি বিগত হেমনগর ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়ে নির্বাচন করে স্বল্প ভোটে ষড়যন্ত্রম‚লক স্বীকারে পরাজিত হউন বিধায় সঠিক ভোটের দাবীও জানান। 


হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মাহমুদুন্নবী রন্জু এর ছোট ভাই হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য আসন্ন হেমনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেক ছাত্র নেতা মো. মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা । এছাড়া তিনি গোপলপুর কলেজ শাখা ছাত্রলীগ এর সাবেক সভাপতি ছিলেন। মো. মোস্তাফিজুর রহমান এর চাচা বিশিষ্ট বিজ্ঞানী, একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা ডঃ নূরুন নবী, উল্লেখ্য, এলাকা সূত্রে জানাগেছে হেমনগর ইউনিয়নে সম্ভাব্য বর্তমান চেয়ারম্যান ও আরও কয়েকজন চেয়ারম্যান প্রার্থী থাকলেও তাদের মধ্যে মো. মোস্তাফিজুর রহমান যোগ্যতা সম্পর্ণ ব্যক্তি হিসেবে এলাকার নিবার্চনী জরিপে ব্যাপক ভাবে জন সমর্থনে এগিয়ে রয়েছেন ।।


আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে মো. মাসুদ খান নাসির চার বছর ধরে গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। তিনি হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান খানের ছেলে ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য। হেমনগর ইউনিয়নের শাখারিয়া মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নিলুফার ইয়াসমিন, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন, ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুল হক খান কিসলুসহ অনেকেই জানান, মাসুদ খান নাসির বিগত চারদলীয় জোট সরকারের সময় ব্যাপক হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তার বাবা মরহুম মতিয়ার রহমান হেমনগর ইউনিয়নবাসীকে সব ধরনের সমস্যায় ছায়া দিয়ে আগলে রাখতেন। উত্তরাধিকার হিসেবে মাসুদ খান নাসিরও বাবাকে অনুসরণ করে জনসেবার মাধ্যমে এলাকার মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। করোনাকালে তিনি ইউনিয়নের ১৯টি গ্রামের সাধারণ মানুষকে খাদ্য ও নগদ অর্থ সহায়তা দিয়ে সাহস দিয়েছেন। স্থানীয় মসজিদ, মাদ্রাসা, বিদ্যালয় ও মন্দিরে তিনি নিয়মিত আর্থিক সহায়তা দিয়ে থাকেন।


হেমনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম রিন্টুসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা '৭১-এর ঘাতক দালাল নির্ম‚ল কমিটির সাধারণ সম্পাদক নাসির একজন সৎ, পরোপকারী, সজ্জন ও প্রতিবাদী ব্যক্তি । হেমনগর ইউনিয়নের তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী ও জনপ্রিয় ব্যক্তি। আগামী ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দিতে একজন ত্যাগী ও তৃণম‚লের নেতা হিসেবে নাসিরকে আওয়ামী লীগের হাই-কমান্ড বিবেচনা করবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন। নলীন বাজার সিএনজি ও ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুদ খান নাসির জানান, তিনি পারিবারিকভাবে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ১৯৯০ সালে তিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা হিসেবে রাজনীতিতে সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করেন। বাবার কাছ থেকে পাওয়া জনসেবাকে তিনি ব্রত হিসেবে গ্রহণ করে এলাকার মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। এলাকার সাধারণ মানুষের ব্যাপক আগ্রহে তিনি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করেন।


মো. ছানোয়ার হোসেন, মো. আব্দুস সালাম, মো. সোহেল খান, মোল্লা মো. বিপ্লব পণ্ডিত। গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম তালুকদার সুরুজ বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একটি বড় দল। তাই মনোনয়নপ্রত্যাশীর সংখ্যাও বেশি। কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতার বিচারে প্রার্থী নির্বাচন করা হবে। প্রয়োজনে তৃণম‚লের ভোটে প্রার্থী ঠিক করা হবে। ভোটারেরা যাঁকে মনোনীত করবেন, তাঁকে নিয়ে সবাই মাঠে নামব।


আমার বার্তা/গাজী আক্তার

আরো পড়ুন