শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কলেজ ছাত্রকে শ্বাসরোধে হত্যা
১৭ এপ্রিল, ২০২২ ১৩:৩১:২৮
প্রিন্টঅ-অ+

রাজধানীর কদমতলীতে সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র রাকিবুল ইসলাম (১৯) হত্যার ঘটনায় এখনও পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। পরিবারের তরফ থেকে একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকালের দিকে এ বিষয়ে কথা হয় কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণয় কুমার সঙ্গে।


গত শুক্রবার সকালের দিকে পুলিশ সংবাদ পেয়ে কদমতলী ইতালি মার্কেট দুই নম্বর মিনাবাগ জাহাঙ্গীরের একতলা বাড়ির পিছনে ময়লাযুক্ত ঝোপঝাড় থেকে রাকিবুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতের গলায় দাগ দেখে পুলিশ ধারণা করছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এর আগে সিআইডির ফরেনসিক ঘটনাস্থলে গিয়ে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে।


ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, রাকিবুল ইসলাম সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল। ১৩ এপ্রিল দুপুরে সে রোজা রাখা অবস্থায় বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। ঐদিন পরিবারের লোকজন দিনরাত সব জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও  কোথাও পায়নি। পরে শুক্রবার সকালে লোক মারফত সংবাদকে ওই ঝোপঝাড়ে গিয়ে তার মরদেহ শনাক্ত করে।


নিহত ছাত্রের বাবার নাম আব্দুল আলী মস্তক। বর্তমানে পরিবারের সঙ্গে থাকত কদমতলী পাটেরবাগ শাহেদ উদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া। পুলিশ কর্মকর্তা প্রলয় কুমার ঘটনার অগ্রগতি সম্পর্কে জানান, পুলিশ আসামিদের ধরতে মাঠে কাজ করছে। খুব শীঘ্রই এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে।


নিহত ছাত্রের বাবা আব্দুল আলী জানান, কে বা কারা আমার সন্তানকে হত্যা করেছে, আমি কিছুই বলতে পারি না। তার কারো সঙ্গে কোন দ্ব›দ্ব ছিল কিনা তাও আমি জানি না। তবে আমার সন্তানের হত্যার বিচার চাই।


মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে থেকে একটি সূত্র জানায়, ওই ছাত্রের মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে শনিবার। নিয়ম অনুযায়ী ময়নাতদন্তের শেষে স্বজনদের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরো পড়ুন