শিরোনাম :

  • তিন অতিরিক্ত এসপিসহ সাত এএসপিকে বদলি বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ এনআরসির বিরুদ্ধে জোট বাঁধার আহ্বান মমতার ধর্ষক রাম রহিমের সঙ্গে দেখা করলেন হানিপ্রীত
এবার গাছের জরুরি সেবায় অ্যাম্বুলেন্স!
আমার বার্তা ডেস্ক :
২৮ মে, ২০১৯ ১২:৪৮:০২
প্রিন্টঅ-অ+


দিন দিন ধ্বংস হচ্ছে গাছ। গাছের অভাবে ধ্বংসের মুখে পৃথিবী। আর সেটা রোধ করতেই এবার গাছের জরুরি সেবায় চালু হয়েছে অ্যাম্বুলেন্স। বিশ্বে গাছের সংখ্যা বাড়ানোই তাদের উদ্দেশ্য। তাই সম্প্রতি ‘বিশ্ব জীববৈচিত্র দিবস’ উপলক্ষে ভারতের চেন্নাইয়ে শুরু হয়েছে ‘গাছের অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা’!

জানা যায়, বিভিন্ন সময়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগে অনেক গাছ উপড়ে যায়। আবার নির্মাণ কাজের জন্য গাছ কেটে ফেলা হয়। অ্যাম্বুলেন্স সেগুলোকে তুলে নিয়ে নতুন করে মাটিতে পোঁতার ব্যবস্থা করে। ঘূর্ণিঝড় ফণীর তাণ্ডবে উড়িষ্যাসহ দাক্ষিণাত্যের পূর্ব উপকূলে কয়েক লাখ বড় গাছ উপড়ে পড়েছে। সেগুলোকে তুলে নিয়ে নতুন কোন জায়গায় লাগানোর চেষ্টা করা হবে।

সূত্র জানায়, ধারণাটি প্রথম আসে পরিবেশ নেতা আবদুল গনির মাথায়। ভারতের ‘গ্রিন ম্যান অব ইন্ডিয়া’ নামে পরিচিত গনি এ পর্যন্ত ৪০ লাখ গাছ লাগিয়েছেন। আরও অনেক সামাজিক আন্দোলনে তার নাম সামনে এসেছে বারবার। একটি বেসরকারি সংস্থার কাছে তিনি এ প্রস্তাব দিলে কাজ শুরু হয়।

আবদুল গনি জানান, উপড়ে যাওয়া গাছ অন্য জায়গায় লাগানোর পাশাপাশি বিভিন্ন গাছের বীজ নিয়ে ঘুরে বেড়াবে অ্যাম্বুলেন্সটি। শহরের মানুষের মধ্যে গাছ লাগানো বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোসহ বিভিন্নভাবে সাহায্য করবে। কোন গাছ মারা গেলে অংশগুলো ঠিক জায়গায় পৌঁছে দেবে। অ্যাম্বুলেন্সেই থাকবে দক্ষ মালি ও গাছকর্মীরা। তাদের সঙ্গে থাকবে বাগান করার বিভিন্ন জিনিসপত্র, সার, পানি, ঝারি, খুরপি ইত্যাদি।

এ কাজে সহায়তা দেওয়া বেসরকারি সংস্থা সাগার কর্মকর্তা সুরেশকুমার যাদব বলেন, ‘কোন গাছ যাতে প্রাকৃতিক বা মানুষের কারণে মরে না যায়। তাই সেগুলোকে রক্ষা করার এ উদ্যোগ অত্যন্ত জরুরি। এজন্য যন্ত্রপাতি বা ওষুধপত্র যা দরকার, সে সবই আমরা রেখেছি।’

তিনি বলেন, ‘অ্যাম্বুলেন্সের হেল্পলাইনে ফোন করামাত্র আমরা অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে পৌঁছে যাব। বিনামূল্যে গাছটিকে সরিয়ে আনব। যত্ন করে তাদের সরিয়ে অন্যত্র বসাব।’



আমার বার্তা/২৮ মে ২০১৯/জহির


আরো পড়ুন