শিরোনাম :

  • রাজধানীর উত্তরখানে আগুনে একই পরিবারের ৮ জন দগ্ধ ভারতে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় তিতলিবাবরসহ ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, তারেকসহ ১৯ জনের যাবজ্জীবনরায়কে ঘিরে ঢাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ
আজ আখেরি মোনাজাত
গাজীপুর প্রতিনিধি :
১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১১:১৪:০৯
প্রিন্টঅ-অ+


টঙ্গীর তুরাগ তীরের বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে আজ শনিবার অনুষ্ঠিত হবে মাওলানা জুবায়ের অনুসারীদের বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, শনিবার সকাল সোয়া ১০ দিকে আখেরি মোনাজাত শুরু হবে এবং মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ জোবায়ের।

বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া মুসল্লিদের পাশাপাশি আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে ঢাকা-গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা শনিবারও ইজতেমাস্থলে আসছেন। মোনাজাতের আগ পর্যন্ত মুসল্লিদের এ আসা অব্যাহত থাকবে। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণে শুক্রবার মধ্যরাত থেকে আখেরি মোনাজাত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহসড়কের জয়দেবপুর চান্দনা চৌরাস্তার ভোগড়া বাইপাস, টঙ্গী ব্রিজ, আশুলিয়া সড়কের কামারপাড়া ব্রিজ ও টঙ্গী-নরসিংদী সড়কের মীরেরবাজার দিয়ে সব ধরনের যানবাহন টঙ্গীতে প্রবেশ বন্ধ রাখা হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান জানান, বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া মুসল্লিরা ছাড়াও অসংখ্য মুসল্লি আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমাস্থলে আসেন। এর জন্য ট্রাফিক ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এদিকে, যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় মোনাজাতে শরিক হতে ভোর থেকে ধর্মপ্রাণ মুসিল্লরা হেঁটেই ইজতেমাস্থলে আসছেন। মহাসড়ক-সড়কগুলোতে যেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের কাফেলা। অনেকে ট্রেনে করে অথবা ওইসব এলাকার অলিগলি রাস্তা দিয়ে রিকশা-ভ্যান, আটোরিকশা, মোটরসাইকেল ইত্যাদি হালকা যানবাহনে করে টঙ্গীতে আসতে দেখা গেছে। গাড়ি বন্ধ থাকায় টঙ্গীগামী ট্রেনগুলো ছিল মানুষে ঠাসা। আবার হাঁটা এড়াতে অনেক মুসল্লি শুক্রবার রাতেই ইজতেমাস্থলে পৌঁছেছেন।

আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ইজতেমাস্থলে এসে পৌঁছেছেন নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ থানার জয়পুর গ্রামের মো. রফিকুল ইসলাম (৬৬)। তিনি জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি বাড়ি থেকে আখেরি মোনাজাতে শরিক হওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সাড়ে ১১টার দিকে মোহনগঞ্জ থেকে ট্রেনে চড়েন, ভোরে এসে টঙ্গী স্টেশনে নামেন। পরে স্টেশন সংলগ্ন মসজিদে ফজরের নামাজ আদায় করে মোনাজাতে অংশ নিতে টঙ্গীর স্টেশন রোড এলাকার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে চলছে এবারের চার দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা। পোশাকে-সাদা পোশাকে প্রায় ১০ হাজার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বিশ্ব ইজতেমা এলাকায় মোতায়েন রয়েছে। রয়েছে আকাশে হেলিকপ্টার ও তুরাগ নদীতে নৌ টহল।

এর আগে ১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম।

আজ আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে মাওলানা জোবায়ের অনুসারীদের ইজতেমা। এরপরে দুই দিন (১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি) একই ময়দানে ইজতেমার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন সা’দপন্থি মাওলানা ওয়াসিফুল ইসলামের অনুসারীগণ। ১৮ ফেব্রুয়ারি তাদের আখেরি মোনাজাতের হবে। এর মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের চার দিনব্যাপী ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমা কার্যক্রম।



আমার বার্তা/১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/জহির





 


আরো পড়ুন