শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
মানবসেবা ও মর্যাদা
মাওলানা ছলিমুদ্দীন ভূঁইয়া
২৮ অক্টোবর, ২০২১ ১৯:৪৮:০১
প্রিন্টঅ-অ+

যারা মানব সেবায় অগ্রগামী তারাই জাতির নেতৃত্ব দিতে পারে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও খুলাফায়ে রাশেদীন ছিলেন মানব সেবায় তথা মানবতার কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ। বিশাল হাদিসের ভান্ডারে ও ইতিহাসের পাতায় পাতায় রয়েছে এর প্রমান। তাই পুরা মানব জাতী তাঁদের সামনে ছিল বিনম্র শ্রদ্ধাবনত। এ কারণেই ইসলামের প্রারম্ভিক যুগে মুহাম্মাদকে সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উদ্দেশ্য করে হযরত খাদিজাতুল কুবরা রা. বলেন, আপনি আত্মীয়ের সেবায় ব্রত। রুগ্ণ, বিকলাঙ্গ, বিধবা, এতিমের ভরণ-পোষণ ও সেবায় মগ্ন। বেকার ও আয়-রোজগারহীন মানুষের খাবারের আয়োজনে ব্যস্ত। অতিথি পরায়ণতায় সিদ্ধহস্ত। দুঃস্থ মানবতার সেবায় ও বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশ্বে দাঁড়ানো আপনার স্বভাব। আল্লাহর কসম, এই গুণগুলো থাকার কারণে আল্লাহ আপনাকে সাহায্য করবেন। কারণ, যার মধ্যে এই গুণগুলো থাকবে আল্লাহ তাকে সাহায্য করিবেন।


মুসলিম রাজন্যবর্গ যত দিন এ গুণগুলো অর্জন করে আমল করতে পেরেছে ততদিন তারা বিশ্ব নেতৃত্ব দিয়েছে। সমগ্র সৃষ্টিজগত তাদের সেবা দিয়ে গেছে। জলে-স্থলে ছড়ি ঘুরিয়েছে মুসলিমরা। এই মুসলিমরাই যখন থেকে আয়েশি জীবনে পা বাড়িয়েছে। সেবা দেয়ার স্থলে সেবা পেতে অভ্যস্ত হয়েছে। বিশ্ব নেতৃত্ব তাদের হাতছাড়া হয়েছে। অপদস্ত হতে শুরু হয়েছে যুগ-যুগান্তরে ও দেশ-দেশান্তরে।


বিপরীতে মানবকল্যাণ বা মানব সেবার এই ব্রত যখন খ্রীষ্টানরা করতে শুরু করলো, বিশ্ব নেতৃত্ব তাদের হাতেই চলে গেল। বাগদাদের মুসলিম খিলাফত ধ্বংস হওয়ার মূল কারণ মুসলমান আমীর ওমারাদের আয়েশি জীবন ও কলঙ্কিত হেরেম নীতি। একই কারণে আট শত বছরের স্পেন হাতছাড়া হয়েছে। মুসলিম গৌরবের উসমানি সাম্রাজ্যও ভেঙে খান খান হয়েছে কতিপয় নীতিহারা মুসলিম নেতার কারণে। ভারতবর্ষের সাত শত বৎসরের মুসলিম নেতৃত্ব হাতছাড়া হওয়ার পেছনের কারণ মুসলিম রাজা-বাদশাহদের অন্তর্দ্বন্দ্ব ও আয়েশি জীবন। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানীর ক্ষমতা লাভের পেছনে কাজ করেছে তাদের ঐক্য ও মানবসেবা। বিশিষ্ট কূটনৈতিক সাহাবী হযরত আমর ইবনুল আস রা. বলেন, শেষ জামানায় খ্রীষ্টানদের প্রধান্য প্রতিষ্ঠিত হবে ৫-টি কারণে- 


১- তারা ধৈর্যশীল হবে।


২- তারা হবে অধ্যাবসায়ী।


৩- তারা ব্যর্থ হইয়া বসিয়া থাকিবে না পুনঃ পুনঃ চেষ্টা করিবে।


৪- তারা ইয়াতীম, বিধবা ও দুঃস্থ ও মানবতার সেবা করিবে।


৫- তারা জালিম বাদশাহর জুলুম হইতে জনগনকে রক্ষা করিবে। যেহেতু এই কাজ গুলো জনসেবা- খিদমাতে খালক তাই-তাদের উন্নতি হবে। শেখ সাদী বলেন, মাদার তেরেসা তারা জন্ম দিলেও আমরা মুসলিমরা পারিনি। মানবতার কল্যাণে তুরস্কের ও কাতারের অবদানের কারণে বিশ্ব নেতৃত্বে তাদের অবস্থান সংহত হয়েছে। দারুল উলুম দেওবন্দের সূচণালগ্নের মুরুব্বিগণের মানবতার কল্যাণে অবদান থাকার কারণেই জাতি তাঁদেরকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে এবং বিশ্বব্যপী দারুল উলুম দেওবন্দের গ্রহণযোগ্যতা সুউচ্চ। সাহাবায়ে কেরাম পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন ব্যবসা, আর আমরা নিয়েছি ইমামতি। এসব কারণেই খিদমাতে খালক আমরা পারি না।


আল্লামা শামসুল হক ফরিদপুরী রহ. বলেন, আবার যেদিন আলেম সমাজ ও মুসলিম নেতৃত্ব মানবতার কল্যাণে ও মানবসেবায় জেগে উঠবে মুসলিম জাতীয় উন্নতি ও মর্যাদাও আবার ফিরে আসবে। আর পরকালীন কামিয়াবীতো রয়েছেই।


আল্লাহ আমাদের তৌফিক দিন।


 

আরো পড়ুন