শিরোনাম :

  • রোকেয়ার আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে নারীরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে : প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল : রাষ্ট্রপতি বেগম রোকেয়া দিবস আজ উগ্রবাদবিরোধী জাতীয় সম্মেলন শুরু হচ্ছে আজ
পাবনায় বিদ‌্যালয়ের বদনাম হবে বলে …
পাবনা প্রতিনিধি :
১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:০২:২৭
প্রিন্টঅ-অ+


হিমু খাতুন বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী। ফল ভালো করতে না পারলে বিদ‌্যালয়ের বদনাম হবে, এ অজুহাতে তাকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় অংশ নিতে দেননি প্রধান শিক্ষক। তাই রোববার শুরু হওয়া পিইসি পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই পরীক্ষাকেন্দ্রে অনুপস্থিত হিমু খাতুন।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার গুনাইগাছা ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের আবদুল হাই ও সেলিনা পারভীনের মেয়ে হিমু খাতুন। দক্ষিণ শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী সে।

আবদুল হাই ও সেলিনা পারভীন দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে হিমু বড়। জন্ম থেকেই বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী সে। তবে একটু সময় দিলে সবকিছুই বুঝতে পারে হিমু। গত অক্টোবরে বিদ‌্যালয়ের মডেল টেস্ট পরীক্ষাতেও পাশ করে সে। কিন্তু বিদ‌্যালয়ের সুনাম রক্ষার অজুহাতে তাকে পিইসি পরীক্ষায় অংশ নিতে দেয়া হয়নি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, পিইসি পরীক্ষা শুরুর দুই দিন আগে হিমুদের বাড়িতে যান দক্ষিণ শিবরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম। ফল ভালো করতে না পারলে স্কুলের বদনাম হবে, তাই হিমু যাতে এবছর পরীক্ষা না দেয় সেজন্য হিমুর বাবা-মাকে বলেন প্রধান শিক্ষক। তার কথায় হিমুর বাবা-মা রাজি হন। হিমু এবছর পরীক্ষা দেবে না, এ মর্মে একটি প্রত্যয়নপত্রও নেন প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম।

আবদুল হাই বলেন, ‘ওই স্কুলে ভালো পড়াশোনা হয় না। ছাত্রছাত্রী কম। তবুও মেয়েকে সেখানে ভর্তি করেছিলাম এজন‌্য যে, স্কুলটি বাড়ির পাশে। আমার মেয়ে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী হলেও পড়তে ও লিখতে পারে। তবে অন্যদের চেয়ে একটু দেরি হয়।’

এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম বলেন, ‘হিমু নামের ওই শিক্ষার্থী লিখতে পারে না। বোঝে না কিছুই। পরীক্ষা দিলে ফেল করবে। এতে স্কুলের বদনাম হবে। তাই আগামী বছর পরীক্ষা দেয়ার জন্য হিমুর বাবা-মায়ের কাছ থেকে প্রত্যয়নপত্র নিয়েছি।’

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের জন্য অনেক সুযোগ-সুবিধা দেয়া হয়। ওই প্রধান শিক্ষক স্কুলের দুর্নাম হবে বলে পরীক্ষা দিতে না দিয়ে অপরাধ করেছেন। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।



আমার বার্তা/১৯ নভেম্বর ২০১৯/রহিমা


আরো পড়ুন