শিরোনাম :

  • নয়াপল্টনে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ জবানবন্দিতে বুলুসহ ১৫ বিএনপি নেতার নাম পেয়েছে পুলিশ সেনা অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সুদান, সংঘর্ষে নিহত ৭দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২
আব্দুল্লাহ আলমামুন আশরাফী
অহঙ্কার পতন ডেকে আনে
৩০ ডিসেম্বর, ২০২১ ২০:৩৬:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+

অহংকার। মানবহৃদয়ের সবচেয়ে ভয়াবহ ব্যাধি। অহংকারকে আরবিতে উম্মুল আমরায তথা সকল রোগের মূল বলে অভিহিত করা হয়। অহংকার মানুষকে ধ্বংস করে দেয়। মানুষকে তুছ মনে করা, হেয় প্রতিপন্ন করা, মানুষের ওপর ধন-দৌলত ও বংশ-মর্যাদার দাম্ভিকতা এবং সত্যকে গ্রহণ না করে অন্যায়ভাবে বিতর্ক করাই হছে অহংকার। নিজেকে অন্যের চাইতে শ্রেষ্ঠ ও মর্যাদাবান এবং অন্যকে ছোট ও তুচ্ছ মনে করাকে আরবিতে কিবর আর বাংলায় অহংকার বলে।


অহংকার শয়তানের বৈশিষ্ট্য। অভিশপ্ত ইবলিস শয়তান সর্বপ্রথম আল্লাহ তায়ালা ও তাঁর সৃষ্টির সাথে অহংকার করেছিল। অহংকার ইবলিস শয়তানকে ধ্বংসের অতল গহ্বরে নিক্ষেপ করেছে। অহংকার এটা আল্লাহ তায়ালা ব্যতীত অন্য কারও জন্য শোভা পায় না।


রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, সুমহান আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘নিশ্চয়ই গৌরব আমার পোশাক এবং অহংকার আমার চাদর। অতএব, যে তা নিয়ে আমার সাথে কাড়াকাড়ি করবে তাকে আমি শাস্তি দিয়ে ছুড়ে দেব।’ [মুসনাদে আহমাদ]


পবিত্র কুরআনুল কারিমের বিভিন্ন জায়গায় অহংকারের নিন্দাবাদ করা হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে , ‘নিশ্চয়ই আল্লাহ কোনো দাম্ভিক অহংকারীকে পছন্দ করেন না।’ [সুরা লুকমান, ৩১ : ১৮]


অহংকারী ব্যক্তিকে আল্লাহ ধ্বংস করে দেন, তার প্রভাব-প্রতাপ নস্যাৎ করে দেন ও তার জীবনকে সংকুচিত করে দেন। যে ব্যক্তি অহংকার করতে চায় ও বড়ত্ব দেখাতে চায় আল্লাহ তাকে লাঞ্চিত করেন। সাইয়িদুনা আলি (রা.) বলেন, ‘মানুষের কিসের এত অহংকার, যার শুরু একফোঁটা রক্তবিন্দু দিয়ে আর শেষ হয় মৃত্তিকায়!’


মুতাররিফ ইবনে আবদুল্লাহ রাহ. ছিলেন বিখ্যাত এক বুযুর্গ। মুহাল্লাব নামক এক লোক তার পাশ দিয়ে রেশমি কাপড় পরে দম্ভভরে হেঁটে যাছিল। বুযুর্গ তাকে বললেন : এভাবে হাঁটছ কেন? সে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দেয়- আপনি জানেন, আমি কে? মুতাররিফ রাহ. উত্তরে যা বলেছিলেন তা প্রতিটি মানুষের মনে স্বর্ণাক্ষরে লিখে রাখার মত। তিনি বলেছিলেন, তোমার সূচনা পুঁতিগন্ধময় বীর্যে, সমাপ্তি গলিত লাশে আর এ দুয়ের মাঝে তুমি এক বিষ্ঠাবাহী দেহ। (তাফসীরে কুরতুবী, সূরা মাআরিজের ৩৯ নম্বর আয়াতের তাফসীর দ্রষ্টব্য)


রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অহংকার নামক এই ভয়াবহ আত্মিক ব্যাধি থেকে বাঁচতে তার প্রিয় উম্মতকে বিভিন্নভাবে নির্দেশনা দিয়েছেন।


আবদুল্লাহ ইবনু মাসঊদ (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যার অন্তরে অণু পরিমাণ অহংকার থাকবে, সে জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না।’ এক লোক বলল, ‘মানুষ তো ভালবাসে যে, তার পোশাক সুন্দর হোক ও তার জুতো সুন্দর হোক (তাহলে)? তিনি বললেন, ‘আল্লাহ সুন্দর, তিনি সৌন্দর্যকে ভালবাসেন। (সুন্দর পোশাক ও সুন্দর জুতো ব্যবহার অহংকার নয়, বরং) অহংকার হলো, সত্যকে প্রত্যাখ্যান করা এবং মানুষকে তুছজ্ঞান করা।’ [সহিহ মুসলিম : ৯১, তিরমিজি : ১৯৯৮, আবু দাউদ : ৪০৯১, ইবনু মাজাহ : ৫৯, আহমাদ : ৩৭৭৯]


আমর ইবনে শুয়াইব তার পিতা থেকে, তিনি তার দাদা থেকে বর্ণনা করেন। তিনি নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন:


‘কিয়ামতের দিন অহংকারীদেরকে ছোট ছোট পিপীলিকার ন্যায় মানুষের আকৃতিতে হাশরের ময়দানে উপস্থিত করা হবে। অপমান ও লাঞ্ছনা তাদের চতুর্দিক থেকে ঘিরে ফেলবে। তাদের জাহান্নামের একটি জেলখানায় একত্র করা হবে, যার নাম হবে বুলাস। আগুন তাদের চতুর্দিক থেকে ঢেকে ফেলবে। জাহান্নামীদের শরীরের ঘাম তাদের পান করতে বাধ্য করা হবে।’ [সুনানে তিরমিজি : ২৪৯২]


অহংকারীর ঠিকানা জাহান্নাম। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বলেন, ‘সুতরাং, তোমরা দ্বারগুলো দিয়ে জাহান্নামে প্রবেশ করো, সেখানে স্থায়ী হবার জন্যে; দেখো অহংকারীদের আবাসস্থল কত নিকৃষ্ট।’ [সুরা নাহল, ১৬ : ২৯]


অহংকারী ব্যক্তিকে আল্লাহ তাআলা পছন্দ করেন না। তিনি অহংকারী ব্যক্তিকে অনেক নেয়ামত থেকে বঞ্চিত রাখবেন। আল্লাহ তাআলা বলেন,


‘দুনিয়াতে যারা অন্যায়ভাবে অহংকার প্রকাশ করে, তাদের আমি অবশ্যই আমার নিদর্শনাবলি থেকে বিমুখ রাখব।’ [সুরা আরাফ : ১৪৬]


তাই আসুন, অহংকারের মতো ভয়াবহ এই ব্যাধি থেকে বাঁচার সর্বাত্মক চেষ্টা করি। নিজের প্রতি আল্লাহর সীমাহীন দয়া ও অনুগ্রহের কথা সব সময় হৃদয়ে জাগরুক রাখি। আমি কিভাবে অহংকার প্রদর্শনের দুঃসাহস দেখাব, যখন আমার আপাদমস্তক দয়াময় মহান আল্লাহর অনুগ্রহের সাগরে ডুবে আছে। আল্লাহর দেয়া নেয়ামত গ্রহণ করে অহংকার প্রদর্শন নীচু মানসিকতা ও চূড়ান্ত নির্লজ্জতা বৈ কিছু নয়। আল্লাহ আমাদের সবাইকে অহংকারের মতো ভয়াবহ ধ্বংসাত্মক এই ব্যাধি থেকে হেফাজত করুন।


লেখক : খতীব, আউচপাড়া জামে মসজিদ টঙ্গী গাজীপুর


 

আরো পড়ুন